জল সংকট

ঝাড়গ্রাম, ১৩ এপ্রিল :  দীর্ঘদিন ধরে চলছে লকডাউন,তার মাঝে গ্রীষ্মের দাবদাহ,প্রত্যন্ত গ্রামগুলিতে শুরু হয়েছে জল সংকট।  ঝাড়গ্রামের সাঁকরাইল ব্লকের খুদমড়াই অঞ্চলের ন্যাকড়াশুলি...

জন্তুর পায়ের ছাপে ফের বাঘের আতঙ্ক ঝাড়গ্রাম শহরে

ঝাড়গ্রাম, ৫ আগস্ট : এবার ঝাড়গ্রাম শহরের উপকন্ঠে দেখা গেল অজানা জন্তুর পায়ের ছাপ। যার ফলে শহরের উপকন্ঠ এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে।  বুধবার সকালে প্রাতঃ ভ্রমণ করতে বেরিয়ে জঙ্গল রাস্তায় এই অজানা জন্তুর পায়ের ছাপ গুলো দেখতে পান স্থানীয় মানুষজনেরা। আর তার পরেই বাঘের আতঙ্ক তৈরী হয় এলাকার বাসিন্দাদের মনে। পরে বনদফতরের কর্মীদের খবর দেওয়া হলে বনকর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পায়ের ছাপ গুলি সংগ্রহ করে নিয়ে আসেন। বনদফতর সুত্রে জানা গিয়েছে পায়ের ছাপ গুলি হায়না,নেকড়ে বা হুড়াল জাতীয় কোনও পশুর পায়ের ছাপ হতে পারে বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান বনদফতরের। তবে কোন গৃহ পালিত পশু বা অন্য কোনও প্রানীর উপর আক্রমনের খবর পাওয়া যায়নি। এবিষয়ে ঝাড়্গ্রামের ডিএফও বাসব রাজ হোলচ্ছি বলেন," বর্তমানে ঝাড়্গ্রাম জেলার প্রায় সব জঙ্গলেই হায়না, হুড়াল, নেকড়ে বাঘ রয়েছে। এই পায়ের ছাপ গুলো অনেকটা হায়নার মত দেখতে। ওরা জঙ্গলের প্রাণী।" উল্লেখ্য গত জানুয়ারি মাসে বিনপুর থানার কাঁকো অঞ্চলে অজানা জন্তুর পায়ের ছাপের দেখাতে পাওয়া গিয়েছিল। তার আগে লালগড়ের মেখেলখেড় জঙ্গলে ট্যাপ ক্যামেরাই রয়েক বেঙ্গল টাইগারের ছবি ধরা পড়েছিল। আর তারপর থেকে গোটা জঙ্গলমহল জুড়ে বাঘের আতঙ্গ জিইয়ে রয়ছে।  পরে বনদফতর সেই পায়ের ছাপ গুলি পরীক্ষা করে দেখে বাঘের পায়ের ছাপ বলে অনুমান করেছিল। এমনকি বেলপাহাড়ীর জঙ্গলে বাঘ দেখেছে দাবি করেছিলেন এক বাসযাত্রী। কিন্তু তারপর থেকে বাঘের কোনও অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। তবে আবারও অজানা জন্তুর পায়ের ছাপে থরহরিকম্প গ্রামের বাসিন্দারা।

সাম্প্রতিক পোস্ট