বাড়ি প্রথম পৃষ্ঠা সিপিএম লোভী, বিজেপি ভোগী, তৃণমূল ত্যাগী : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

সিপিএম লোভী, বিজেপি ভোগী, তৃণমূল ত্যাগী : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

25
0

বাঁকুড়া, ২৫ নভেম্বর  : বর্তমানে পাখির চোখ একুশের নির্বাচনে। ইতিমধ্যে রাজনৈতিক দলগুলো নিজেদের মধ্যে শুরু করে দিয়েছে নির্বাচনের প্রস্তুতি। এইসবের মাঝেই ৮ মাস করোনা কাঁটায় বন্ধ থাকার পর বাঁকুড়ায় প্রথম রাজনৈতিক সভায় যোগ দিয়ে রাজ্যের বিরোধী দলগুলোর বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘সিপিএম লোভী, বিজেপি ভোগী, তৃণমূল ত্যাগী’ তোপ মুখ্যমন্ত্রীর। 
 এই প্রসঙ্গে বিজেপিকে এক হাত নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ সিপিএম লোভী, বিজেপি ভোগী, তৃণমূল ত্যাগী। বাঁকুড়ায় একটা আসনও পাবে না বিরোধীরা। বিজেপির পায়ে পড়েছে সিপিএম, লজ্জাও নেই। ক্ষমতা থাকলে জেলে ভরো। জেলে থেকে জেতাব’। এরপরেই অমিত শাহর রাজ্য সফরকে কে কটাক্ষ করে মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘ বকেয়া আটকে রেখেছে কেন্দ্র।বকেয়া মেটাতে বহুবার চিঠি দিয়েছি। পাঁচতারা হোটেলের খাবার খেয়েছে। আদিবাসীদের প্রতি ভালোবাসার নাটক। বিজেপি ৩৬৫ দিন বোকা বানাচ্ছে। একশো দিনের টাকা সুদে খাটাচ্ছে কেন্দ্র। সবচেয়ে বড় অভিশাপ বিজেপি। বিজেপিকে জব্দ করব। কে কার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে জানি। প্রতিদিন তৃণমূলের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে টুইট। লাগাতার অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। কয়েক জায়গায় ধান্দাবাজ রয়েছে। খেয়াল রাখুন কে কোথায় যাচ্ছে। বিজেপি মিথ্যাচারের ডাস্টবিন। সিপিএম কংগ্রেস বিজেপি সরকার থাকলে সবাই বঞ্চিত হবেন। চাষীদের আলু পেঁয়াজ তেল লুট করবে বিজেপি। এই সরকার থেকে সবাই বঞ্চিত হবেন। ২০২১ তৃণমূল কংগ্রেসই। বাঁকুড়ার ছেলেমেয়েরা ভয়ে বেরোতে পারত না। আপনারা নি সেই সব দিন ভুলে গিয়েছেন? আজ বাঁকুড়ার মানুষ শান্তিতে আছেন। তৃণমূল কংগ্রেসকে হারানোর জন্য সিপিএম, বিজেপি ও কংগ্রেস এক হয়েছে’। এরপর মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন জানান, ‘বাঁকুড়ায় চারটি মাল্টি স্পেশালিটি হাসপাতাল হয়েছে। ৩৫-৪০ কোটি টাকা ভাড়ায় ৩০০ ট্রেনে পরিযায়ীদের ফিরিয়েছি। অনুর্বর জমি উর্বর করে ২৫ লক্ষ যুবক-যুবতীদের চাকরি দেব’। 

Loading...