বাড়ি কলকাতা সাতসকালে বৃষ্টিতে নাজেহাল বাবলু কর্মকারেরা

সাতসকালে বৃষ্টিতে নাজেহাল বাবলু কর্মকারেরা

72
0

কলকাতা ২৮ মে  :  প্রতিদিন ভোর পৌনে পাঁচটায় সাইকেল চড়ে কলকাতার অফিসে রওনা হন বাবলু কর্মকার। আজও হরেছিলেন। কিন্তু মাঝপথে এসেও ফিরে যেতে হয়  ঝড়বৃষ্টিতে। ঠিক এভাবেই মাছ, বাজার প্রভৃতি নানা পরিষেবা আজ মার খায় দুর্যোগে। 

বাবলুবাবু (৪৭) কাজ করেন ২০৭ শরৎ বসু রোডে এয়ারটেল ষ্টোরে। চার ঘন্টা লাগে সাইকেলে আসতে। এর পর তিনটায় রওনা হয়ে সন্ধ্যায় বাড়ি। এই প্রতিবেদককে তিনি বলেন, “বৃষ্টি উপেক্ষা করে আসছিলাম। যখন নরেন্দ্রপুরে আসি, বাজ পড়ছে। আর ঝুঁকি নিতে পারলাম না। ফোনে ওপরওয়ালাকে জানিয়ে ফিরে গেলাম।“ এভাবেই এ দিন সকালে বৃহত্তর কলকাতায় বিভিন্ন বাজারের সরবরাহকারী, বিক্রেতা, এমনকী ক্রেতারা সমস্যায় পড়েন। আড সকাল থেকে শুরু হয়েছে দমদম বিমানবন্দরের উড়ান। সেটি ধরতে গিয়ে ফাঁপড়ে পড়েন যাত্রীদের একাংশ। 
ঝড়বৃষ্টির ঝাপটা বুধবার সন্ধ্যাতেই খেয়েছে বিস্তীর্ন বাংলা। তাতে বেশ কিছু গাছ ভেঙেছে, ল্যাম্পপোস্ট ভেঙেছে, বাড়ির চাল উড়েছে এমনকি দু’জনের প্রাণহানীর ঘটনাও ঘটেছে। রাতভর রাজ্যের নানা জায়গায় এক নাগাড়ে বা দফায় দফায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হয়ে গিয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালেও সেই পরিস্থিতির বদল হয়নি। দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকা ঢাকা পড়ে কালো মেঘে। বৃষ্টি হয়। যদিও বেলা বাড়লে বৃষ্টি থামে। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়ে দিয়েছে এই রকম আবহাওয়া আজ দিনভরই থাকবে।

Loading...