বাড়ি ব্যবসা লকডাউনের জেরে এবার ইলিশ বাড়ছে দেদার

লকডাউনের জেরে এবার ইলিশ বাড়ছে দেদার

117
0

কলকাতা, ১২ জুন : এই বছর বাঙালির পাতে বেশ ভালই দেখা মিলবে ইলিশের। রাজ্যের মৎস্য বিশেষজ্ঞদের অনুমান। সৌজন্য অবশ্যই লকডাউন। 
ফি বছর ইলিশের জন্য হা-পিত্যেশ করে বসে থাকে খুব কম করেও ৩ থেকে ৪ কোটি বাঙালি। এপার বাংলা থেকে শুরু করে ওপার বাংলা মায় বিদেশে থাকা বাঙালিদের কাছেও ইলিশের জুড়ি মেলা ভার, এতটাই সে হট ফেভারিট। গত কয়েক বছর ধরেই সেই ইলিশ ঠিক জমিয়ে খেতে পারেনি এপার বাংলার ভোজনবিলাসীরা। কারণ গঙ্গায় মিলছিল না ইলিশ। আর ওপার বাংলা থেকে ইলিশ পাঠানো বন্ধ করে দিয়েছিল শেখ হাসিনার সরকার। তাই যেটুকু মিলছিল তা ছিল চড়া দরে। এবার কিন্তু এই ছবিটিই আসছে বদল। প্রতি বছর সমুদ্রের এই মাছ বর্ষায় বৃষ্টি শুরু হলেই ঝাঁকে ঝাঁকে চলে আসে গাঙ্গেয় অববাহিকায়। গঙ্গা ও তার শাখা নদী গুলির অন্দরে তারা আসে মিঠা জলের সন্ধানে। সেখানেই তারা পারে ডিম। কার্যত পুরো বর্ষাকাল জুড়ে চলে ইলিশের এই গমন। আবার বর্ষার শেষ দিকে সেই সব নতুন চারাপোনা ইলিশদের নিয়ে বড় ইলিশেরা ঝাঁকে ঝাঁকে ফিরে চলে সাগরে দিকে। 
এবছর লকডাউনের দরুন এপ্রিল মাস থেকে কার্যত সাগরের গভীরে কেউ মাছ ধরতে যাচ্ছেন না। যে টুকু যাচ্ছেন ওই সাগরের তীর থেকে ৫-৬ মাইলের মধ্যেই যা মাছ পাচ্ছেন তাই নিয়েই চলে আসছেন মৎস্যজীবিরা। ফলে গভীর সমুদ্র থেকে পাড়ের দিকে আসার পথে ইলিশের ঝাঁক মৎস্যজীবিদের হাতে ধরা পড়ছে না। উঠছে না খোকা ইলিশও। 
আবার তুলনায় সাগরে মাছ ধরার ট্রলার কম যাওয়ায় সাগরে দূষণ ছড়িয়েওছে কম। দূষণমুক্ত সাগরে পুষ্ট হয়ে উঠতে পেরেছে ইলিশের দল। সেই ইলিশই এবার বর্ষার পিছু পিছু ঢুকতে শুরু করেছে গঙ্গার বুকে। ইতিমধ্যেই দিঘায় দেড় থেকে দুই কেজির ইলিশ ধরা পড়তে শুরু করেছে মৎস্যজীবিদের জালে আর তাও একদ্ম পাড়ের কিনারায়। গঙ্গায় তাই এবার ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ পাওয়া যাবার সম্ভাবনা রয়েছে। করোনার আবহে এবছর ইলিশ বাইরের দেশে পাঠানোও যাবে না। সুতরানহ যা উঠছে জালে তার সবই আসবে বাংলার বাজারে, যোগান বেশি থাকায় স্বাভাবিক ভাবে তার দামও কম পড়বে।

Loading...