বাড়ি কলকাতা রাতের শহরে দুর্ঘটনায় মৃত্যু সাংবাদিকের, গুরুতর আহত আরও এক

রাতের শহরে দুর্ঘটনায় মৃত্যু সাংবাদিকের, গুরুতর আহত আরও এক

32
0


কলকাতা, ২২ জানুয়ারি : রাতের শহরে মর্মান্তিক বাইক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন একজন সংবাদকর্মী। অপর এক সংবাদকর্মী গুরুতর জখম অবস্থায় আইসিইউ-তে ভর্তি। বৃহস্পতিবার রাতে দক্ষিণ কলকাতায় প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডে লর্ডস মোড়ে দুর্ঘটনাটি ঘটে। মৃত ওই সাংবাদিকের নাম সোহম মল্লিক। আহত সাংবাদিক ময়ূখ রঞ্জন ঘোষ। বৃহস্পতিবার রাতে বাইক নিয়ে ফিরছিলেন ওই দুই সাংবাদিক। তখনই দুর্ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ সূত্রে খবর, সম্ভবত গাছের সঙ্গে ধাক্কা মারে তাঁদের বাইকটি। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পড়ে যান দু’জন। সুইগির কয়েকজন কর্মীর নজরে আসতেই তাঁরা ওই দুই সাংবাদিককে তুলে হাসপাতালে নিয়ে যায়। একজনকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়, এবং অন্যজনকে এসএসকেএম হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয়।
সূত্রের খবর, এর পর ময়ূখ রঞ্জনকে মল্লিকবাজারের ইন্সটিট্যুট অফ নিউরো সায়েন্সে নিয়ে যাওয়া হয়। মাথায় গুরুতর চোট পেয়েছেন তিনি। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী ময়ূখের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁর একটা চোখের প্রভূত ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরা। সোহম এবং ময়ূখ রঞ্জন – দু’জনেই সাংবাদিক মহলে অত্যন্ত পরিচিত মুখ ছিলেন। সদ্য নয়া চাকরিতে যোগ দিয়েছিলেন তাঁরা। নিজের লেখনীর সোশ্যাল মিডিয়ায় অত্যন্ত পরিচিত ছিলেন ময়ূখ রঞ্জন। বিভিন্ন বিষয়ে তাঁর লেখনী ফেসবুকের দেওয়ালে ছড়িয়ে পড়ত। বুধবার রাতেও প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতকে নিয়ে ময়ূখের লেখা সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল। দুর্ঘটনার পর ময়ূখ জানিয়েছেন, বাইকের চাকা পিছলে গিয়ে একটি গাছে ধাক্কা লাগে। তারপর তাঁর আর কিছু মনে নেই।সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার রাতে ময়ূখ এবং সোহম যাদবপুরে ইমনকল্যাণ লাহিড়ি নামে এক অধ্যাপকের বাড়িতে যান। তিনজনে ছবি তুলে ফেসবুকে দেন। শিরোনামে লেখেন, “পুরনো সম্পর্ক, পুরনো কলকাতা, পুরনো রাত…নতুন করে পাবো বলে।” রাত প্রায় আড়াইটায় ওই ছবি তোলার কিছুক্ষণ বাদে ফেরার পথে দুর্ঘটনায় পড়েন ময়ূখ এবং সোহম। ময়ূখের ফেসবুক পরিচিতি অনুযায়ী তিনি একজন ‘গল্পওয়ালা, ফেরিওয়ালা’। এবিপি আনন্দ, টাইমস নাউ ও নিউজ ১৮ বাংলার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি। 

Loading...