বাড়ি রাজ্য মাদক মিশ্রিত খাবার খাইয়ে বেঁহুশ করে সর্বস্ব লুট

মাদক মিশ্রিত খাবার খাইয়ে বেঁহুশ করে সর্বস্ব লুট

36
0

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢোলাহাটঃ বাড়ির তিন সদস্যকে মাদক মিশ্রিত খাবার খাইয়ে বেঁহুশ করে রাতের অন্ধকারে সর্বস্ব লুট করার অভিযোগ উঠল প্রতিবেশী এক মহিলার বিরুদ্ধে। শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে ঢোলাহাট থানার দক্ষিণ রায়পুর এলাকার রাজপাড়ায়। সকাল হলে বাড়ির মধ্যে থেকে তিন জনকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। এই ঘটনায় লায়লি নামে এক মহিলার নাম উঠে আসে। ওই মহিলার খোঁজ শুরু করেছে ঢোলাহাট থানার পুলিশ।স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে এলাকার বাসিন্দা সাইফুল রাজ ও তার ছেলে রায়হান রাজ কর্মসূত্রে কেরালাতে থাকেন। বাড়ি তে সাইফুলের স্ত্রী, মেয়ে এবং বৌমা থাকেন। সম্প্রতি বাড়ি তৈরির জন্য তাঁরা ব্যাংক থেকে নগদ ৬৫ হাজার টাকা তুলে এনে বাড়িতে রেখেছিলেন। এদিকে   লায়লি নামের মহিলা দিন পাঁচেক আগে শ্বশুরবাড়ি থেকে বাপের বাড়িতে ফিরেছিল। শনিবার রাতে সাইফুল রাজদের বাড়িতে ঘুমোতে গিয়েছিল। সেই সময়ই বাড়ির তিন মহিলাকে লায়লি মাদক মিশ্রিত খাবার খাওয়ায় বলে অভিযোগ। এরপর সকাল হতে না হতেই বাড়িতে থাকা নগদ ৬৫ হাজার টাকা ও সোনার গহনা নিয়ে চম্পট দেয় লায়লি। সকাল হলে এলাকার মহিলারা অনেক ডাকাডাকির পর সাড়া না পেয়ে দরজা খুলে দেখেন বেহুঁশ হয়ে পড়ে রয়েছেন সাইফুল রাজের স্ত্রী, কন্যা ও পুত্রবধূ। কিন্তু করোনা আতঙ্ক থাকায় স্থানীয়রা তাঁদের কাছে যেতে পারেন নি। প্রথমটায় তাঁরা ভেবেছিলেন করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়ে রয়েছে তিন জন। খবর দেওয়া হয় ঢোলাহাট থানায়। পুলিশ এসে তিন জনকে উদ্ধার কয়ে স্থানীয় গদামথুরা প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যায়। স্থানীয়দের অনুমান তাঁদেরকে তিন জনকে মাদক মিশ্রিত খাবার খাওয়াতেই তাঁরা বেহুঁশ হয়ে পড়েছেন। এই ঘটনায় লায়লি নামে যে মহিলার নাম উঠে আসছে তার খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ। তবে বেহুঁশ মহিলারা এখনও পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি থাকায় থানায় কোন অভিযোগ দায়ের হয় নি। এই ঘটনায় বড় কোন চক্র জড়িত কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Loading...