বাড়ি রাজ্য দক্ষিণ ২৪পরগনা ভাড়াটিয়ার পরকীয়ায় বাধা, সোনারপুরে খুন হলেন বাড়িওয়ালা

ভাড়াটিয়ার পরকীয়ায় বাধা, সোনারপুরে খুন হলেন বাড়িওয়ালা

469
0

সোনারপুর, ২ অক্টোবর: ভাড়াটিয়ার পরকীয়াতে বাধা দেওয়ার কারণে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হল বাড়িওয়ালাকে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুর থানার অন্তর্গত নাটাগাছি এলাকার ঘটনা। নিহতের নাম পিন্টু সরদার। এই ঘটনায় অভিযুক্ত ভাড়াটিয়া রূপা ও তার স্বামী নূরজামাল লস্করকে গ্রেফতার করেছে সোনারপুর থানার পুলিশ। পিন্টুকে খুন করে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা মূল অভিযুক্ত সেখ মনিরুল ইসলামকে ধরে বেধড়ক মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।স্থানীয়দের দাবি, পরকীয়াতে বাধা দেওযার কারণেই বাড়ির মালিককে খুন করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় নাটাগাছির রাস্তায় বুকে ছুড়ি চালিয়ে খুন করা হয় পিন্টু সর্দারকে৷ রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন৷ পিন্টু পেশায় ফুচকা বিক্রেতা৷ পিন্টুর বাড়িতেই ভাড়়া থাকত রুপা ও তার স্বামী নুরজামাল নস্কর৷ তাদের আসল বাড়ি দক্ষিণ বারাসত এলাকায়। সোমবার রাত সাড়ে আটটা নাগাদ আচমকা তার উপর হামলা চালানো হয়৷ সেই সময় ফুচকা বিক্রি করছিলেন পিন্টু৷ ঘটনার পরেই এলাকা থেকে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে মূল অভিযুক্ত শেখ মনিরুল ইসলাম৷ হাওড়ার বাসিন্দা এই মনিরুলের সঙ্গেই বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল রূপার। পিন্টুর বাড়িতে রূপার ভাড়া ঘরে তার স্বামীর অবর্তমানে যাতায়াত ছিলো মনিরুল ইসলামের। রূপা ও মনিরুলের এই সম্পর্কের প্রতিবাদ করেছিলেন পিন্টু। সেই কারণেই তার উপর হামলা করা হয় বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় রুপা ও তার স্বামীকে ও গ্রেফতার করেছে সোনারপুর থানার পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে খুন ও ষড়যন্ত্রের মামলা রুজু করা হয়েছে। ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

Loading...

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here