বাড়ি রাজ্য ভরা কোটালে ফের জলমগ্ন এলাকা,বাঁধ মেরামতি না হওয়ায় পঞ্চায়েতে বিক্ষোভ গ্রামবাসীদের

ভরা কোটালে ফের জলমগ্ন এলাকা,বাঁধ মেরামতি না হওয়ায় পঞ্চায়েতে বিক্ষোভ গ্রামবাসীদের

51
0

সৌরভ দাশ, হাসনাবাদ

 ভরা কোটালে ফের প্লাবিত এলাকা।ক্ষোভে পঞ্চায়েত অফিস ঘেরাও,ভাঙচুর গ্রামবাসীর।উত্তর চব্বিশ পরগনার হাসনাবাদ ব্লকের পাটলীখানপুর পঞ্চায়েতের ঘটনা।আমপানের পর কেটেছে ১৮ দিন,এখনো মেরামতি হয়নি বাঁধ,ভরা কোটালে জলেচ্ছ্বাসে বৃহস্পতিবার ফের জল বাড়ে ডাসা নদীতে,ফল স্বরুপ জলস্তর বেড়ে যায় ঘুনী,পুর্ব ঘুনী,পাটলীখানপুর সহ বিভিন্ন এলাকায়। ক্ষোভে স্থানীয় পঞ্চায়েত অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে এলাকাবাসী।তালা লাগিয়ে দেওয়া হয় স্থানীয় পন্চায়েত অফিসে।গ্রামবাসী দের অভিযোগ বাঁধ সংস্কারের জন্য অর্থ বরাদ্দ হয় কিন্তু সুপারভাইজারের হাত ধরে টাকা তছরুপ হয় কিন্তু বাঁধ সংস্কারের কাজ হয়না। তারা জানান১৮ দিন কেটে গেলেও পঞ্চায়েতের তরফে মেলেনি কোনো সহায়তা,এমনকি স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধানের দেখা পাওয়া যায়নি বলেও অভিযোগ। কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পে ক্ষতিগ্রস্ত দের নথি জমা নেওয়া নিয়েও দলবাজি চলছে বলে অভিযোগ স্থানীয় দের।জল বাড়ায় বসত বাড়ি ছেড়ে ফের রাস্তায় উঠে আসে গ্রামবাসী, আর তারপর ই ক্ষোভে ফেটে পরেন তারা। পাটলীখানপুর পঞ্চায়েতের প্রাক্তন উপ প্রধান, এবারের তৃনমুলের নির্বাচিত পঞ্চায়েত সদস্য বর্তমানে  দলত্যাগী  পিন্টু মোল্লা জানান পঞ্চায়েত প্রধান গত ১৮ দিনে পঞ্চায়েতেই আসেন নি,বাঁধ মেরামতি র কাজ তো হয়নি ই এমনকি ত্রান শিবিরেও পৌঁছায় নি ত্রান।শুধু বিভিন্ন জায়গায় মিটিং হচ্ছে,কাজ কিছু হচ্ছে না।স্থানীয় তৃনমুল নেতা তথা পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামী আব্দুল রহিম গাজী জানান তার বিরুদ্ধে চক্রান্ত করছে বিজেপি,ইরিগেশানের তরফে টিয়ামারি,খোলসাখালি তে আমপানের পর পরই বাঁধ মেরামতির কাজ শুরু হয়েছিল তবে ভরা কোটালের জেরে তা আবার ভেঙে প্লাবিত হয় এলাকা।তিনি জানান বিষয় টি ইরিগেশান সম্পর্কীত, এত জায়গায় ভাঙনে তিনি তাদের ছাড়া কিছু করতে অপারক।

Loading...