বাড়ি প্রথম পৃষ্ঠা বিমান এবং ভিন রাজ্যের ট্রেন অবিলম্বে বন্ধ করার দাবি মুখ্যমন্ত্রীর

বিমান এবং ভিন রাজ্যের ট্রেন অবিলম্বে বন্ধ করার দাবি মুখ্যমন্ত্রীর

44
0

কলকাতা, ২১ মার্চ :  করোনা রুখতে অবিলম্বে পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে বিদেশের বিমান এবং ভিন রাজ্যের দূরপাল্লার ট্রেনের যোগাযোগ বন্ধ করে দেওয়ার দাবি জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রেলমন্ত্রক এখনই এই ব্যবস্থা না নিলে ট্রেন বন্ধ করে দেওয়ার হতে পারে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি। 

মহারাষ্ট্রের কিছু শহরে প্রচুর মানুষ করোনায়  আক্রান্ত হয়েছেন। ওইসব জায়গায় বাংলা থেকে যাওয়া শ্রমিকরা অধিকাংশই চলে আসছেন।  কিন্তু হাওড়া শিয়ালদা স্টেশনে এইসব যাত্রীদের শারীরিক পরীক্ষা করার কোনও পরিকাঠামো নেই ।  সুতরাং তাঁদের মাধ্যমে গ্রামে এবং জেলায় রোগ ছড়িয়ে পারে বলে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।  মুখ্যমন্ত্রী আজ একথা  স্বীকার করে অভিযোগ করেন, বিমান দূরপাল্লার ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দিতে কেন্দ্রীয় সরকারকে আর্জি জানিয়েছি। এ ব্যাপারে তারা কথা শুনছে না। 
 মুখ্যমন্ত্রী শনিবার সংবাদমাধ্যমকে বলেন, এটা সত্যিই খুব চিন্তার ব্যাপার। লাফিয়ে লাফিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এই রোগ এখন দ্বিতীয় সপ্তাহে, তৃতীয় সপ্তাহের দিকে যাচ্ছে।  খুব বিপজ্জনক। যাঁরা আসছেন, রাজ্য থেকে তাদের তো আর তাড়াতে পারবো না। কিন্তু তাঁরা যেন বাড়ি থেকে না বার হন। অসুখের বীজ থাকলে সঙ্গে সঙ্গে তার ট্রিটমেন্ট করুন। বাড়িতে আলাদা ঘরে থাকবেন।আর যদি না থাকে, তাহলে অন্তত মশারির ভেতর থাকুন। এটা তো অস্পৃষ্য রোগ নয়! সাবধানতার জন্য কেবল নিজের জন্য নয়, বাড়ির সবার জন্য, সমাজের কথা ভেবেও এই নিরাপত্তা নিতে হবে। 
সেই সঙ্গে, বাইরে থেকে আগত ব্যক্তি যে বালতি, সাবান, থালা-বাটি-গ্লাস ব্যবহার করবেন, সেগুলি পরিবারের অন্য কেউ ব্যবহার করবেন না। যথাসম্ভব সাবধানতা অবলম্বন করবেন। মুখ্যমন্ত্রী এই সঙ্গে এ দিন বলেন, আক্রান্তদের অনেকে বিমানে এসেছেন। কলকাতায় যে তিনজনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে তারা সকলেই বাইরে থেকে এসেছেন। এ রাজ্যে আমরা দৃঢ়ভাবে এই রোগ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেছি।  এখন পর্যন্ত সফল হয়েছি কিন্তু ট্রেনে করে যাঁরা আসছেন তাঁদের ব্যাপারে আমরা কী করব?এক মাস ধরে কেন্দ্রকে বলছি। এরকম করলে আমরা দূরপাল্লার ট্রেন বন্ধ করে দেব।  নামতে দেব না। তবে এখন আর এসব বলে কী হবে? গত কয়েক দিনে তো বেশ কয়েক হাজার লোক চলে এসেছেন।

Loading...