বাড়ি রাজ্য বাঁকুড়া বাঁকুড়া দাঁতালের তান্ডবে আতঙ্কে গ্রামবাসীরা

বাঁকুড়া দাঁতালের তান্ডবে আতঙ্কে গ্রামবাসীরা

43
0

সকালেই গ্রামের পুকুরে প্রাতকার্য সারতে গিয়ে চাক্ষুষ করেন মাঝ বয়সী এক মহিলা। আর তার পর থেকেই আতঙ্কে কাটল দিল। গ্রামের অধিকাংশ ঘরের বাসিন্দারাই ঘরছাড়া। অসুস্থ বৃদ্ধা মা ঘরে আটকে রয়েছেন আর্ত সুরে ছেলে ছুটে বেড়াচ্ছেন গ্রামের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত। ঘরে জ্বলল চুলো,দিনের আহারের কথা এক প্রকার ভুলেই গিয়ে দাঁতাল হাতির অবস্থানে ব্যাকুল করল গ্রামের মানুষজনকে। এমনই চিত্র দেখা গেল বাঁকুড়া ১ নং ব্লকের পাথরাকাটা গ্রামে। বনবিভাগ সুত্রে জানা যায়  জানা দাঁতালটি খাঁতড়া বনাঞ্চল থেকে একটি হাতির পাল থেকে পাল তির দলছুট হয়ে বাঁকুড়া সদর সন্নিকটে কালপাথর পঞ্চায়েতের অন্তর্গত পাথরাকাটা গ্রামে ঢুকে পড়ে।  শনিবার সকালেই গ্রামের মধ্য ঢুকে গ্রামের একাধিক স্থানে তান্ডব চালায়। কার্যত ভয়ে গ্রাম ছাড়েন অনেকেই। রবিশস্যের পাশাপাশি খামারে তোলা ধান তছনছ করে। মানুষের গলার শব্দ পেলেই সেই দিকেই ধাওয়া করে দাঁতালটি। এদিকে এই ঘটনার খবর পেতেই ঐ স্থানে গিয়ে পৌছায় বাঁকুড়া দক্ষিণ বনাঞ্চলের বাঁকুড়া রেঞ্জের আধিকারিকরা। পাশাপাশি হাতি তাড়ানোর টিম এর মাধ্যমে তারা হাতিটিকে বাগে আনার চেষ্টা করলেও মানুষের অবস্থান লক্ষ করেই দাঁতালটি বনের ভেতরে ঢুকে যায়। এদিন বিকেলের পর হাতে মশাল নিয়েও দাঁতালটিকে বাগে আনতে পারেনি বনকর্মীরা। তবে বনকর্মীদের মতে দিনের আলোয় লক্ষ্য করতে পারছেন না মশালের আগুন।রাত্রে হুল্লা পাটির দ্বারা আগুনের মশাল দেখিয়ে হাতিটিকে তার গন্তব্যস্থলের মুখে পাঠানো হবে। গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা বিধান মাল জানান আমার বাড়ি থেকে ১০০ মিটার দুরে রয়েছে দাঁতালটি। ফলে না খাওয়া ভুলে ওই হাতের অবস্থা নেই লক্ষ্য রেখেছি ৫ মিনিট ১০ মিনিট ছাড়া ছাড়া আমার বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় এসে সবজি তছনছ করছে ও ধানগোলা উল্টে দিলেই। বেশ আতঙ্কে কাটাতে হচ্ছে।

Loading...