বাড়ি ভ্রমণ বছরের শেষদিনে পর্যটকদের উপছে পড়া ভিড় সুন্দরবনে

বছরের শেষদিনে পর্যটকদের উপছে পড়া ভিড় সুন্দরবনে

293
0

সুন্দরবন, ৩১ ডিসেম্বর  : সারা বছরই সুন্দরবনে প্রচুর পর্যটক আসেন ভ্রমণের জন্য। তবে শীতের মরশুমে সুন্দরবন ভ্রমণে পর্যটকদের উৎসাহ চোখে পড়ার মতো। সুন্দরী সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভের অরণ্য ও বন্যপ্রাণী দেখতেই দেশ বিদেশের বহু পর্যটক ভিড় করেন সুন্দরবনে। এবারও তার অন্যথা হয়নি। শীতের শুরু থেকেই তাই সুন্দরবনে নেমেছে পর্যটকদের ঢল। বছরের শেষদিনেও বদলায়নি ছবিটা। বছরের শেষদিনে ও সুন্দরবনের ঝড়খালী, সজনেখালী, সুধন্যখালিতে তাই উপছে পড়েছে মানুষের ভিড়।

পুরানো বছরকে বিদায় ও নতুন বছরকে স্বাগত জানানোর সন্ধিক্ষণে হাজার হাজার পর্যটক ভিড় জমিয়েছেন সুন্দরবনে। শীতের মিঠে রোদ গায় মেখে লঞ্চে চেপে সুন্দরবনের এক দ্বীপ থেকে আরেক দ্বীপে প্রকৃতির সৌন্দর্য উপভোগ করতে পাড়ি দিচ্ছেন পর্যটকরা। এর সাথে উপরি পাওনা রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের দর্শন। তবে গত কয়েকদিন আগেও প্রায় প্রতিদিন রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের দর্শন মিললেও বছর শেষে কার্যত দক্ষিণরায়ের দেখা না পেয়ে হতাশ হতে হয়েছে পর্যটকদের। কিন্তু হরিন, কুমীর, বন্য শূকরের মত বহু বন্য প্রাণীর দেখা মিলেছে সুন্দরবনে। আর এতেও ভীষণ খুশি সুন্দরবনে আগত পর্যটকরা। এ বিষয়ে সুন্দরবনে বেড়াতে আসা এক পর্যটক লীনা রায় বলেন, “ বহুদিন ধরেই ইচ্ছে ছিল সুন্দরবনে বেড়াতে আসার। এবার সেটা সফল হয়েছে। আমরা খুবই আনন্দ করছি এই বছর শেষের দিনগুলি। বাঘের দেখা না পেয়ে সামান্য মন খারাপ হলেও আমরা প্রচুর পরিমাণে হরিন, কুমীর, বাঁদর ও বহু পাখি দেখেছি। আমরা ভীষণ খুশি”।
এবছর সুন্দরবনে আগত সমস্ত পর্যটকদের অন্যতম গন্তব্য ঝড়খালী। তাই অন্যান্য কেন্দ্রের থেকে ভিড় ও বেশি এই ঝড়খালীতে। বছরের শেষদিনে চড়ুইভাতি থেকে শুরু করে নদীবক্ষে ভ্রমণে এই ঝড়খালীর জুড়ি মেলা ভার। তবে আনন্দের মাঝে যাতে কোনরকমে বিপদ বা দুর্ঘটনা না ঘটে সেই কারণে সদা সর্বদা জাগ্রত রয়েছেন পুলিশ কর্মীরা। বনকর্তাদের দাবী, “ সারা বছর সুন্দরবনে আগত পর্যটকদের মধ্যে এই ঝড়খালীতেই সব থেকে বেশি পর্যটক আসেন। ডিসেম্বরের এই শেষ সপ্তাহে ঝড়খালীতে রেকর্ড পরিমাণ ভিড় হয়েছে পর্যটকদের”। রেকর্ড পরিমাণ পর্যটক আসায় খুশি সুন্দরবনে ট্যুর ব্যবসার সাথে যুক্ত মানুষজন ও। সুন্দরবন ট্যুর অপারেটর নিউটন সরকার বলেন, “ সারা বছরই এখন সুন্দরবন ট্যুর হয়। তবে এবার শীতের প্রথম থেকেই যেভাবে পর্যটকদের ঢল নেমেছে সুন্দরবনে তা সমস্ত রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। শীতের শুরুতে বহু পর্যটকরাই বাঘের দেখা পেয়েছেন। তবে ডিসেম্বরের এই শেষ সপ্তাহে বাঘের দেখা না পেলেও পর্যটকরা বহু পরিমাণে হরিন, কুমীর, বিভিন্ন ধরনের পাখি সহ বহু বন্যপ্রান দেখেছেন। ডিসেম্বরের পাশাপাশি নতুন বছরের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসে ও বহু পর্যটক সুন্দরবনে বেড়াতে আসবেন বলে আমরা আসাবাদ”।
দিনের পর দিন সুন্দরবনে পর্যটকদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় এলাকার আর্থ সামাজিক উন্নয়ন হচ্ছে। এলাকার বহু মানুষ এই পর্যটন ব্যবসার সাথেই নিজেদের জড়িয়ে নিয়েছেন। এলাকায় বহু নতুন হোটেল, রেস্টুরেন্ট এমনকি হোমস্টে ট্যুরিজম ও চালু হয়েছে এই সুন্দরবন এলাকায়।

Loading...