বাড়ি কলকাতা পশ্চিমবঙ্গের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ সুনীল অরোরার

পশ্চিমবঙ্গের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ সুনীল অরোরার

40
0

কলকাতা, ২১ জানুয়ারি : বৃহস্পতিবার সকালে  এডিজি আইন শৃঙ্খলা জ্ঞানবন্ত সিংয়ের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ। আর এই বৈঠকেই পরেই রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল আরোরা। পাশাপাশি রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাঁদের তরফে। বুধবার কলকাতায় এসে রাজ্যের নির্বাচনী আধিকারিক আরিজ আফতাবের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনিল আরোরা। সেখানে রাজ্যে কিভাবে শান্তি শৃঙ্খলা মেনে ভোট করানো যায় সে বিষয়ে কমিশন যথেষ্ট ওয়াকিবহাল বলেই জানিয়েছেন তিনি। এদিন বৃহস্পতিবার রাজ্যের প্রশাসনিক এবং রাজনৈতিক মহলের সঙ্গে বৈঠক করেন তাঁরা।   আজ বৃহস্পতিবার রাজ্যের এডিজি আইন-শৃঙ্খলা জ্ঞানবন্ত সিং এর সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন সুনিল আরোরা। যদিও কাল রাতেই বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সূচি পরিবর্তিত হয় বৃহস্পতিবার সকালে প্রথমার্ধেই এ বৈঠক শুরু হয়। এছাড়াও আজ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি, জেলাশাসক ও পুলিস সুপারের সঙ্গে বৈঠকে বসেন তিনি। অন্যদিকে আগামীকাল মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, ইলেক্টোরিয়াল অফিসার, নোডাল অফিসার-সহ প্রশাসন ও নির্বাচন প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করবেন ফুলবেঞ্চের সদস্যরা।  মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা জানান, আইনশৃঙ্খলা প্রশ্নে কোনওরকম আপোস করা হবে না৷ নির্বাচনের অনেক আগে থেকে রাজ্যের বিরোধী দলগুলি শাসক দলের বিরুদ্ধে যেমন হিংসার আশ্রয় নেওয়ার অভিযোগ তুলেছে, তেমনই পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধেও শাসক দলের হয়ে কাজ করার অভিযোগ উঠেছে৷ বৈঠকে রাজ্য পুলিশের শীর্ষ কর্তা জ্ঞানবন্ত সিংকে বার্তা দেওয়া হয়, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে কড়া পদক্ষেপ নিতে হবে৷ এ বিষয়ে কোনও ধরনের শিথিলতা বরদাস্ত করবে না কমিশন৷ পাশাপাশি, ভোটের আগে পশ্চিমবঙ্গে শান্তি ফেরানোর উপযোগী পদক্ষেপ করার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার।
অন্যদিকে গতকাল রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক আরিজ আফতাবের সঙ্গে বৈঠকে রাজ্যের আইন শৃংখলার বিষয়ে কোনও রকম গাফিলতি মেনে নেওয়া হবে না বলেও কড়া নির্দেশ দিয়েছেন সুনিল আরোরা। পাশাপাশি রাজ্য নির্বাচন কমিশনের কাজে সন্তোষ প্রকাশ করে তাঁকে অভয় দিয়েছে নির্বাচন কমিশনের সাত সদস্যের ফুল বেঞ্চ। জানানো হয়েছে, নির্বাচনের কাজে যুক্ত আধিকারিকদের যথাসম্ভব নিরপেক্ষতার সঙ্গে কাজ করতে হবে।

Loading...