বাড়ি রাজ্য মালদা নিঁখোজ কলেজ ছাত্রীর পচাগলা দেহ উদ্ধারের ঘটনায় রহস্যের দানা বেধেছে

নিঁখোজ কলেজ ছাত্রীর পচাগলা দেহ উদ্ধারের ঘটনায় রহস্যের দানা বেধেছে

158
0


মালদা, ১৯ অক্টোবর । নিঁখোজ কলেজ ছাত্রীর পচাগলা দেহ উদ্ধারের ঘটনায় রহস্যের দানা বেধেছে। পরিবারের লোকেদের অভিযোগ বিয়েতে মত না থাকায় তার হবু স্বামী তাকে খুন করেছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় মালদার রতুয়া থানার সামসি কলেজ মোড় এলাকায় ধান খেত থেকে দেহ উদ্ধার হয়। প্রতিবাদে ও দোষীর শাস্তির দাবীতে শনিবার রতুয়ার বাহারাল মোড়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় স্থানীয় বাসিন্দা ও মৃতের পরিবারের লোকেরা। পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেলের মর্গে পাঠায়।
পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে মৃত কলেজ ছাত্রীর নাম রেজিনা খাতুন(২১)। বাবা আনিশুর রহমান। বাড়ি রতুয়া থানার বাহারাল উত্তর সাহাপুর গ্রামে। রেজিনা খাতুন সামসি কলেজে প্রথম বর্ষের ছাত্রী। পরিবার সুত্রে জানা গিয়েছে, গত প্রায় দুই বছর আগে বাহারাল খাটখোলা এলাকার বাসিন্দা বাপি শেখের সাথে বিয়ে ঠিক হয়। বাপি শেখ আর্মিতে চাকুরি করে। চাকুরি পাওয়ার সময় রেজিনা খাতুনের পরিবারের কাছে প্রায় ১০ লক্ষ টাকা নেয় পণ হিসাবে। কিন্তু চাকুরি পাওয়ার পর আন্য যুবতীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে বাপি শেখ। গত ১৫ দিন আগে বাড়ি আসে বাপি। ওই যুবতীর সঙ্গে তাকে ধড়ে ফেলে পরিবারের লোকেরা। এই নিয়ে সালিশি হয়। পরিবার সুত্রে জানা গিয়েছে ঘটনার পর গত ১৪ অক্টোবর বান্ধবীদের সাথৈ ঘুরতে যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে বের হয় রেজিন। তারপর থেকেই নিখোঁজ হয়ে যায়। পরিবারের লোকেরা থানায় একটি নিখোঁজ অভিযোগ দায়ের করে। শুক্রবার বিকেলে সামসি কলেজ মোড় এলাকায় ধানের জমিতে একটি পচাগলা দেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা। রতুয়া থানায় খবর দিলে পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। মৃতের পরিবারের লোকেরা দেহটি সনাক্ত করে। ঘটনায় দোষীর শাস্তির দাবীতে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় স্থানীয়।

Loading...