বাড়ি রাজ্য মালদা দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টার পর অবশেষে ড্রেনের কাজ শুরু হলো মালদহের হরিশচন্দ্রপুর শিবমন্দির পাড়ায়।...

দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টার পর অবশেষে ড্রেনের কাজ শুরু হলো মালদহের হরিশচন্দ্রপুর শিবমন্দির পাড়ায়। খুশির আমেজ এলাকায়

35
0

মালদা;20 জানুয়ারি: চাচোল মহকুমার হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লক অন্তর্গত হরিশ্চন্দ্রপুর শিব মন্দির পাড়ায় রাস্তা দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থায় ছিল। বর্ষার সময় রিতিমত বর্ষার জল জমে রাস্তার অবস্থা শোচনীয় হয়ে পড়তো। জল জমে রাস্তা কম জলাশয়ে পরিণত হত বেশি। তাই ওখানকার বাসিন্দাদের দাবি ছিল সেখানে যাতে দ্রুত জল নিকাশি ব্যবস্থা করা হয় কারণ রাস্তায় জল জমে তা যাতায়াতের অযোগ্য হয়ে ওঠে। এমনকি রাস্তার পাশে কোনো ড্রেন অবদি নেই বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। এবং গত বর্ষায় এই নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা বিক্ষোভও দেখিয়েছিলেন বলে স্থানীয় সূত্রে খবর। অবশেষে হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লক পঞ্চায়েত সমিতির ভূমি কর্মদক্ষ আদিত্য মিশ্রর উদ্যোগে আওতায় ৩৬ লক্ষ ৪৯ হাজার ২২০ টাকা বরাদ্দে সেই রাস্তায় ড্রেনের কাজ শুরু হল। আশা করা যাচ্ছে এই প্রকল্পের কাজ এক মাসের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে। তার শুভ উদ্বোধন ছিল আজ। উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন হরিশ্চন্দ্রপুর ১ ব্লক বিডিও অনির্বাণ বসু, হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লক পঞ্চায়েত সমিতির ভূমি কর্মাদক্ষ আদিত্য মিশ্র, হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লক যুব সভাপতি জিয়াউর রহমান, হরিশচন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান রিষবা খাতুনের স্বামী আফজাল হোসেন এবং প্রমুখ। এই প্রকল্পের পর খুশির হাওয়া এলাকায়। তাদের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হওয়ায় আনন্দের বাতাবরণে ছড়িয়েছে এলাকায়।

স্থানীয় বাসিন্দা ইমরান হোসেন বললেন, “এটা আমরা বলে বোঝাতে পরবোনা। এই প্রকল্পে আমরা ভীষণ খুশি। আমাদের দীর্ঘদিনের সমস্যার আজ সুরাহা হলো। বৃষ্টির জল জমে নাজেহাল অবস্থা হতো আমাদের। এই প্রকল্পের জন্য আমরা আফজাল হোসেন, আদিত্য বাবু এবং প্রসাশনের কাছে কৃতজ্ঞ।”

এই প্রকল্প প্রসঙ্গে হরিশ্চন্দ্রপুর ১ ভূমি কর্মাধক্ষ আদিত্য মিশ্র জানান, “আজ হরিশ্চন্দ্রপুর শিব মন্দির পাড়ায় ড্রেনের শিলান্যাস ছিল। এখানকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল এখানে ড্রেনের কাজ করানোর জন্য। সত্যিই ড্রেনের প্রয়োজন ছিল। ঘর বাড়ি উঁচু হয়ে যাওয়ায়। ড্রেনের জল জমে রাস্তার শোচনীয় অবস্থা হত। আজ অনেক চেষ্টার পর আমরা সেই কাজ করতে পেরেছি।”

Loading...