বাড়ি অন্যান্য ঝাড়্গ্রামে শবর পাড়াতে মদ আসক্তদের সচেতন করল স্থানীয় ক্লাবের সদস্যরা

ঝাড়্গ্রামে শবর পাড়াতে মদ আসক্তদের সচেতন করল স্থানীয় ক্লাবের সদস্যরা

442
0

ঝাড়্গ্রাম, ১৫ নভেম্বর  : লালগড়ে পূর্ণাপানি গ্রামে শবর মানুষজনদের মৃত্যুর ঘটনার পর ঝাড়্গ্রাম শহরের মধ্যে লোধা শবর পাড়াতে গিয়ে মদ আসক্ত মানুষদের সচেতন করল একটি স্থানীয় ক্লাবের সদস্যরা। বৃহস্পতিবার ক্লাবের সদস্যরা লোধা শবর পাড়ার বাড়ি বাড়ি গিয়ে মদের ক্ষতিকারক দিকটি তুলে ধরেন। সঠিক সময়ে খাদ্য গ্রহন এবং অসুস্থ হলে ওষুধ খাওয়ার প্রয়োজনীয়তার দিকটি গুলি বুঝিয়ে বলেন শবর মানুষদের।এদিন কদমকানন ইউনাইটেড ক্লাবের সদস্যরা সকাল থেকেই এক নম্বর ওয়ার্ডের কদমকাননের শিরিসচকের শবর পাড়ায় মদ্যপান বিরোধী অভিযান চালায়।সরকার যে চাল,আটা সহ অন্যান্য পরিষেবা দিচ্ছে তা যাতে তারা সদব্যবহার করে সেই বিষয়টিও ক্লাবের ছেলেরা শবর মানুষ গুলির কাছে তুলে ধরেন। ক্লাবের পক্ষ থেকে শবর পাড়ার বাসিন্দাদের কোন শারীরিক সমস্যা আছে কিনা সেই ব্যাপারে তথ্য সংগ্রহ করেন। এলাকায় যক্ষা রোগের সংক্রমণ দেখা দিয়েছে এমন রোগীর সংখ্যা প্রায় দশ জন রয়েছে বলে তাদের প্রাথমিক ভাবে অনুমান। এরা প্রত্যেকে চিকিৎসা করাচ্ছে কিনা তাও খোঁজখবর নেন ক্লাবের সদস্যরা। কয়েকটি শিশু জ্বরে ভুগচ্ছে দেখে তাদের প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন তাঁরা। এছাড়াও এদিন শিরিশচক অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রটি থেকে মা, শিশুরা ঠিকমত খাদ্য পাচ্ছে কিনা সেই বিষয়ে খবর নিয়ে দেখেন। ক্লাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ওই কেন্দ্রে ভার প্রাপ্ত কর্মীদের থেকে তারা খবর নিয়েছে শবর পাড়াতে গর্ভবতী মায়ের সংখ্যা প্রায় বাইশ জনের কাছাকাছি রয়েছে।তাদের নিয়মিত যাতে দেখভাল করা হয় সেই বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে বলে জানান ক্লাবের সদ্যসরা। উল্লেখ্য লালগড়ের পূর্নাপানি গ্রামের খবর সামনে আসার পর গত বুধবার ঝাড়গ্রাম শহরের সব থেকে বড়ো শবর পাড়াতে খোঁজ খবর নিতে এসেছিলেন জেলা প্রশাসন ও মহকুমা শাসক সুবর্ণ রায়, ঝাড়গ্রাম জেলা স্বাস্থ্য দফতরের মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিক অশ্বিনীকুমার মাঝি সহ অন্যান্য আধিকারিকেরা। এবিষয়ে ঝাড়গ্রাম কদমকানন ইউনাইটেড ক্লাবের আহ্বায়ক সাগর গুইন ও কোষাধ্যক্ষ দেবজ্যোতি ব্যানার্জি বলেন, অতীতেও আমাদের ক্লাবের সদস্যরা নানা রকম সমাজ কল্যাণ সচেতনতামূলক প্রচার কর্মসুচি করেছে এসেছে এলাকায়। আমরা ধারাবাহিক ভাবে সমাজ কল্যানমূলক প্রচার ও যে কোনো সমস্যায় বরাবর পাশে আছি এবং থাকবো। আগামী দিনেও আমরা এইরকম সচেতনতামূলক কর্ম সূচি চালিয়ে যাব।।

Loading...