বাড়ি কলকাতা চিভনিং স্কলারশিপে আরও আবেদন চায় ব্রিটেন

চিভনিং স্কলারশিপে আরও আবেদন চায় ব্রিটেন

98
0

কলকাতা, ২৪ ফেব্রুয়ারি :  ভারত, পশ্চিমবঙ্গ, বিশেষ করে কলকাতার সঙ্গে ব্রিটেনের সম্পর্ক আরও উন্নত হোক। সোমবার বিষয়টির ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন কলকাতায় ব্রিটিশ ডেপুটি হাই কমিশনার নিক লো। ব্রিটিশ চিভনিং স্কলারশিপের ঘোষণা করতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন। 

কলকাতা প্রেস ক্লাবে এদিন সকালে এক আলোচনাচক্রে তিনি বলেন, ইওরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেড়িয়ে এসেছে ব্রিটেন। চিভনিং স্কলারশিপ দু’দেশের গুরুত্বপূর্ণ যোগসূত্র হিসাবে কাজ করতে পারে। এই বৃত্তির জন্য দেশের অন্য কিছু অঞ্চলের তুলনায় দেশের পূর্বাঞ্চল থেকে কম আবেদন যাচ্ছে। এই আবেদন আরও বেশি হওয়া দরকার বলে মন্তব্য করেন তিনি। তবে, আজকের অনুষ্ঠানে এত নবীন পড়ুয়া এবং এই বৃত্তিপ্রাপ্ত প্রাক্তনী আসায় সন্তোষ প্রকাশ করেন নিক লো। দীক্ষান্ত ভাষণ দেন দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের মিনিস্টার কাউন্সিলার ফেরগাস অল্ড। 
এদিনের অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে ভাষণ দেন কলকাতা প্রেস ক্লাবের সভাপতি স্নেহাশিস সুর, সম্পাদক কিংশুক প্রামাণিক, চিভনিং প্রাক্তনীদের সংগঠনের কলকাতা অঞ্চলের প্রধান বর্ণা মজুমদার।  ইউরোপে উচ্চশিক্ষা প্রত্যাশীদের জন্য সোনার হরিণ। এই স্কলারশিপ মানেই আপনি পাচ্ছেন গ্রেট ব্রিটেনের বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে বিনা বেতনে পড়াশুনার সুযোগ। 
আবেদনের যোগ্যতা: চিভনিং এর জন্য অনুমোদিত দেশের নাগরিক হতে হবে আপনাকে। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানসহ ১৪৪টি দেশ শেভেনিং এর জন্য অনুমোদিত। ব্রিটেনের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে মাস্টার্স বা পিএইচডি কোর্সে আবেদন করতে পারেন, এমন কোনও বিষয়ে গ্রাজুয়েট হতে হবে। অর্থাৎ, ব্রিটেনের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যেসব বিষয় রয়েছে, সরাসরি সেগুলো না পড়লেও সেগুলোর সাথে সম্পৃক্ত বিষয়ে সম্মানসহ গ্রাজুয়েশন থাকতে হবে। এ ছাড়া, গবেষণা কাজে অন্তত ২ বছরের অভিজ্ঞতা ও শেভেনিংএর ইংরেজি ভাষা দক্ষতা। কয়েকটি স্বীকৃত ভাষা দক্ষতার সার্টিফিকেট শেভেনিং গ্রহণ করে।এগুলো হলো: আইইএলটিএস অ্যাকাডেমিকস, পিয়ার্সন পিটিআই অ্যাকাডেমিক, টোয়েফল আইবিটি, কেমব্রিজ ইংলিশ : অ্যাডভান্সড (সিইএ), ট্রিনিটি আইএসই ২ (বি২)। এগুলোর যে কোনও একটি সার্টিফিকেট দেখাতে হবে।
ব্রিটিশ শেভেনিং স্কলারশিপের ওয়েবসাইটটিই আবেদনের একমাত্র বৈধ মাধ্যম।  ওয়েবসাইটের অ্যাপ্লাই বাটোনে গিয়ে আপনার নিজ দেশ সিলেক্ট করে প্রয়োজনীয় তথ্যপ্রদানের মাধ্যমেই সম্পন্ন হবে আপনার আবেদন প্রক্রিয়া।বিস্তারিতঃ http://www.chevening.org এক বছরের মাস্টার ডিগ্রি নিতে আগ্রহী শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারে। তবে এর আগেই আপনার পছন্দের কোর্সে আবেদন করে ফেলতে পারেন।  স্কলারশিপের আওতায় যা যা পাবেন— টিউশন ফি, মাসিক ভাতা, নিজ দেশ থেকে যুক্তরাজ্যে যাওয়া-আসার যাতায়াত  ভাতা, ভিসা আবেদনের খরচ। 
আবেদনের যোগ্যতা-  অনার্সে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ নাম্বার পেতে হবে, মাস্টার্স কোর্সে আবেদন করার জন্য প্রয়োজনীয় সকল যোগ্যতা, আবেদন করার জন্য ২ বছর কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে, আইইলটিএসে ন্যুনতম ৬.৫ থাকতে হবে (প্রতি সেকশনে ন্যুনতম ৫.৫)। শিক্ষাজীবনের কোন পর্যায়ে তৃতীয় বিভাগ গ্রহণযোগ্য নয় l প্রয়োজনীয় কাগজপত্র: লেটার ফরম্যাটে ইংরেজীতে লিখিত দুইটি রেফারেন্স, পাসপোর্ট/ জাতীয় পরিচয়পত্র, ইউনিভার্সিটি ট্রান্সক্রিপ্ট (আন্ডারগ্রাজুয়েট, পোস্টগ্রাজুয়েট), প্রার্থী যেসব বিষয়ে মাস্টার্স করতে চায় এমন তিনটি বিষয়ের নাম। এগুলো অনলাইন আবেদন করার সময় পিডিএফ ফর্ম্যাটে আপলোড করতে হবে। আর ফাইলের সাইজ ৫এমবি এর বেশী হওয়া যাবে না।

Loading...