বাড়ি অন্যান্য চিনা পণ্য বর্জন করবো নাকি গ্রহণ

চিনা পণ্য বর্জন করবো নাকি গ্রহণ

57
0

নয়াদিল্লি, ৪ জুন : চিনা পণ্য বর্জন করা উচিত নাকি উচিত নয়? দুই শব্দে এর উত্তর দেওয়াটা কঠিন। যবে থেকে লাদাখে মুখোমুখি দাঁড়িয়ে রয়েছে ভারত ও চিনা সেনা, তখন থেকে দেশের বিভিন্ন সংগঠন, নেতা, বাবা এবং বহু লালা দাবি করছেন যে ভারতের উচিত চিনা পণ্য বর্জন করা। তাদের অসন্তুষ্ট হওয়ার কারণ রয়েছে। কারণ নরেন্দ্র মোদী সরকার চিনা নেতাদের সঙ্গে অনেক ভাল সম্পর্ক বজায় রেখেছেন। এর পাশাপশি করোনার কারণে বিশ্বের ১২৫ টি দেশ চিনের বিরুদ্ধে আঙ্গুল তুলেছে। এমন পরিস্থিতিতে ভারত পুরোপুরি মৌনী বাবা হয়ে রয়েছে। চিনের সঙ্গে বর্তমানে ভারত ৫ থেকে ৬ লক্ষ কোটি টাকার ব্যবসা চলছে। এতে পাল্লা ভারী চিনের। এর পরেও ভারতীয় সীমান্ত পেরিয়ে চিন নিজেদের ট্রাক, ট্যাংক এবং যুদ্ধ বিমান উড়িয়ে চলেছে। আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করার ভনিতা করছে চিন। কিন্তু সমঝোতার দিকে আলোচনা আর এগোচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে আর্থিক দিক দিয়ে চিন কেউ উচিত শিক্ষা দিতে চাইলে সেটা স্বাভাবিক। দেশবাসীর ক্ষোভকে সম্মতি জানিয়ে ভারত সরকার যদি চিনের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করে দেয় তবে কি সেটা উচিত কাজ হবে? আমি মনে করি এটি অনুচিত। এটা ঠিক যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করে দিলে চিনের ৭৪ বিলিয়ন ডলার মূল্যের পণ্য বিপর্যস্ত হবে। কিন্তু ভারতেরও ১৮ বিলিয়ন ডলারের পণ্য চিনে বিপন্ন হয়ে পড়বে। এ ছাড়াও আমাদের কয়েক লক্ষ উদ্যোগপতি এবং কর্মী দুই তরফা বাণিজ্যিক টানাপোড়েনের জেরে কাজ হারাবে। প্রথমেই করোনার জেরে কয়েক লক্ষ মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। সেই বিভীষিকাকে কি ফের আমরা ফিরিয়ে আনব। অন্যদিকে বহু চিনা কোম্পানি ভারতে কাজ করছে। ভারতেরও বহু কোম্পানি চিনে বিনিয়োগ করেছে। সরকার চিনের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক বন্ধ করে দিলে হঠাৎ করে অনেক সমস্যার সৃষ্টি হবে। ভারতীয় বাজারে চিনের বিচরণ ভূমিতে পরিণত করা একেবারে উচিত কাজ নয়। এই কাজ ধীরে ধীরে করতে হবে। চিনা পণ্য বর্জনের অভিযান বেসরকারি সংগঠন এবং রাজনৈতিক দলগুলোর চালানো উচিত। যে ৬০ থেকে ৭০ বিলিয়ন ডলারের পণ্য আমরা কিনছি চিন থেকে তার মধ্যে ১০ বিলিয়ন ডলারের পণ্য কিনতে আমরা বাধ্য। কিন্তু কাপড়, জুতো, মোবাইল ফোন, খেলনা, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র, রেফ্রিজারেটর, মূর্তি তো আমরা নিজেরাই বাইাতে পারি। চিনা অ্যাপ ও ওয়েবসাইট বর্জন করার দিকটি ভাবা যেতে পারে। ভারতকে আত্মনির্ভর বানাতে হলে শুধু চিন নয় অন্যান্য দেশ থেকে পণ্য কেনার উপরও আমাদের সঙ্কোচ এবং সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। 

Loading...