বাড়ি প্রথম পৃষ্ঠা চিকিৎসার থেকেও বেশি প্রয়োজন সর্তকতা, বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

চিকিৎসার থেকেও বেশি প্রয়োজন সর্তকতা, বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

101
0

কলকাতা, ১ এপ্রিল : করোনাকে পরাস্ত করতে গেলে চিকিৎসার থেকেও বেশি প্রয়োজনীয় সর্তকতা অবলম্বন করা। বুধবার নবান্নে চিকিৎসকদের সঙ্গে বৈঠকের পর এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি আগামী ২- ৩ সপ্তাহ করোনা মোকাবিলার ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে জানান তিনি। 
বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী ফের একবার রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে সর্তকতা অবলম্বন করার কথা বলেন। জানান, ” সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। আপনার রোগ হলে আপনার পরিবারে সেই সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা সব থেকে বেশি। সারা বছর আমার সাথে ঝগড়া করুন কিন্তু এই সময় অন্তত সরকারের কথা শুনুন। নিয়ে খেলবেন না।” এর পরেই তিনি রাজ্যবাসীকে আতঙ্কিত না হওয়ার অনুরোধ করে বলেন, “আগামী ২-৩ সপ্তাহ খুব গুরুত্বপূর্ণ। করনার সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে বলে আতঙ্কিত হবেন না।” 
করোনার প্রকোপ ঠেকাতে রাজ্য তথা দেশজুড়ে শুরু হয়েছে লকডাউন। গৃহবন্দী থাকতে হচ্ছে সকল মানুষকে। এই অবস্থায় পাড়ার মোড়ে আড্ডা মারতে দেখা যাচ্ছে কিংবা চায়ের দোকানে জমায়েত করতে দেখা যাচ্ছে বেশ কিছু মানুষকে। এ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, “আমার কানে আসছে অনেকেই আড্ডা মারছেন। একসাথে ক্যারাম খেলছেন। কিন্তু আড্ডা মারার খেলার সুযোগ অনেক পাবেন এখন দয়া করে বাড়িতে থাকুন। “
পাশাপাশি তিনি মানুষকে সচেতন করে বলেন, “অত্যাবশ্যকীয় পণ্য পরিষেবা দোকান নিয়মিত খোলা থাকছে। তাই অযথা দোকানে ভিড় করবেন না। নিজেরাই দূরত্ব বজায় রেখে জিনিস কিনুন।” কুড়িগ্রাম ও শহরাঞ্চলের আশেপাশের মানুষদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন নিত্য প্রয়োজনীয় ও অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবা সব সময় পাওয়া যাবে তাই অযথা ভিড় করার প্রয়োজন নেই। ভিদ্মতে হোম ডেলিভারি পরিষেবা চালু করা হয়েছে বলেও একবার ফের উল্লেখ করেন তিনি। একই সঙ্গে বারবার লকডাউনকে মেনে চলার জন্য অনুরোধ করেন মুখ্যমন্ত্রী।” 

Loading...