বাড়ি রাজ্য nadia ক্ষমতায় আসার খিদে দিদি কে কত নিচে নামিয়ে দিয়েছে- স্মৃতি ইরানি

ক্ষমতায় আসার খিদে দিদি কে কত নিচে নামিয়ে দিয়েছে- স্মৃতি ইরানি

554
0

 দেবাশীষ কংশবণিক, কৃষ্ণনগর। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ব্রিগেড সমাবেশে দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জোটের উদ্দ্যোগ নিয়ে বিজেপি যে কতটা উদ্বেগের মধ্যে ,তার কার্যত প্রকাশ্যেই বুঝিয়ে দিয়ে গেলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানী l তার প্রায় পৌনে ষোল মিনিটের ভাষণে সিংহভাগই ব্যয় করলেন জোটের উদ্দ্যোগের সমলোচনা করেই l স্মৃতি ইরানী মমতা বন্দোপাধ্যায়কে ‘দিদি ‘সম্বোধন করে বলেন,’ কংগ্রেস সরকার বাঙ্গলা র উন্নয়নের জন্য পাঁচ বছরে আপনার সরকারকে মাত্র এক লক্ষ কোটি টাকা দিয়েছিল l অথচ দেশের প্রধান সেবক মোদীজি বাঙ্গলার উন্নয়নের জন্য ২ লক্ষ ৮০ হাজার কোটি টাকা দিয়েছেন l এরপরও কেন দিদি মোদীর সরকারটা ভালো লাগছে না ?যে বাঙ্গলাকে ,বাঙ্গলার মানুষের উন্নয়নের জন্য বেশি টাকা দিচ্ছে,তাহলে কেন কংগ্রেস ,সিপিএম ও অন্যদের নিয়ে জোট করছ ?তাতে বাঙ্গলার মানুষের আধিকারের হত্যা করা হচ্ছে l ‘প্রিয়াঙ্কা গাঁধীর সক্রিয় রাজনীতিতে যোগদানের পরদিন নদিয়ার কৃষ্ণনগরের সন্ধ্যা মাঠপাড়ার মাঠে গণতন্ত্র বাঁচাও সভায় এসে কংগ্রেসের প্রতি তীব্র  বিষোদগার করেন স্মৃতি ইরানী l তিনি কংগ্রেসের সঙ্গে  জোট বাধা নিয়ে কার্যত সতর্কতার ঢঙ্গে বলেন ,’বাঙ্গলায় দিদির কী পরিণতি ?সিপিএমকে  দিদির চুল ধরে টেনে অপমান করেছিল l তা  একসময় দেখেছিল কংগ্রেস l যে কংগ্রেসকে দিদি নিজেই ছেড়ে দিয়েছিলেন ,সেই সিপিএম ,সেই কংগ্রেস ও এক একটি রাজনৈতিক দলকে দিদিকে এক মঞ্চে দাঁড়াতে দেখে আমি অবাক হয়েছি l যে কংগ্রেসের হাতে তৃণমূলের কর্মকর্তাদের রক্ত লেগে রয়েছে ,সেই হাত ধরে দিদি জোট করছেন ,এটা ভেবে তো অবাক হচ্ছিই l ‘সমালোচনা করে বলেন ,’দিদির ক্ষমতার ক্ষিদে কী হয় ,এদের নিয়ে গাঁটবন্ধন করছেন !বাঙ্গলার মানুষকে আমি এটাই বলতে চাই ,দিদি যার সঙ্গে দাঁড়িয়ে আছেন ,সেই কংগ্রেস সরকারে থাকার সময় বাঙ্গলার জন্য কী করেছে ?’স্মৃতি ইরানী মা ,মাটি ,মানুষের সরকারের তীব্র সমালোচনা করে বলেন ,”এখানে মা অপমানিত l মাটিতে রক্ত মানূষ দেখতে পারছেন l আর তৃণমূল বাঙ্গলার মানুষের গলা চেপে বসে আছে l ‘জোটের উদ্দ্যোগের সমলোচনার পাশাপাশি মোদী সরকারের বেশ কয়েকটি উন্নয়নকাজ তুলে ধরেন তিনি l বলেন ,’মোদীজির আমলে উজালা যোজনা প্রকল্পে বাঙ্গলার ৭০ লক্ষ গরীব বোন বিনামূল্যে গ্যাস পেয়েছেন l বাঙ্গলার ইতিহাস মনে রেখেছে ,আগে ব্যবসা করতে সুদখোরদের কাছে যেতেন ,সেখানে এখন মুদ্রা যোজনার আশীর্বাদে বাঙ্গলার দেড় কোটি মানুষের  প্রথমবার ৫০ হাজার টাকা থেকে দশ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পাওয়ার ব্যবস্থা মোদী সরকার করেছে l আর দিদি ,আপনি মোদীর বিরুদ্ধে জোট করছেন ?’আবার মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনা করে বলেন ,’বাঙ্গলার কী অবস্থা ?দিদি আপনি দূর্গাপুজোয় বিসর্জন করতে দিচ্ছেন না l সরস্বতী পুজো করতে দিচ্ছেন না l মানূষকে জয় শ্রীরাম বলতে দেখে রামধনু থেকে রাম বাদ দিয়ে রংধনু হোক ,চাইছেন l আপনাকে জিজ্ঞাসা করতে চাইছি,আর কতদিন হিন্দু বিরোধী সরকার বাঙ্গলায় চলবে ?এটা নির্ণয় করতে হবে l ‘তৃণমূলকে তীব্র আক্রমণ করে বলেন ,’বাঙ্গলার   গরীব মানুষকে জিজ্ঞাসা করা হলে তারা বলছেন ,তৃনমূল দিচ্ছে না শুধু নিচ্ছে l সবকিছুতেই তোলাবাজির ট্যাক্স নিচ্ছে l ‘ এদিন সভায় স্মৃতি ছাড়াও ছিলেন মুকুল রায়, রাহুল সিনহা, প্রাক্তন বিধায়ক শমীক ভট্টাচার্য, জেলা সভাপতি মহাদেব সরকার প্রমুখ।

Loading...