বাড়ি কলকাতা কিশোরীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার রিজেন্ট পার্কে

কিশোরীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার রিজেন্ট পার্কে

153
0

কলকাতা, ২১ জানুয়ারি :  সােমবার রাতে এক কিশোরীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। গলায় ফাঁস দিয়ে সে আত্মঘাতী হয়েছে বলে সন্দেহ। তার নাম দোলন দাস। বয়স বছর পনেরাে। দশম শ্রেণীর ওই ছাত্রী অভিভাবকদের বকুনি খেয়ে আত্মহত্যা করে বলে অভিযোগ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে দক্ষিণ কলকাতার রিজেন্ট পার্ক থানার অধীন আনন্দপল্লীতে। 
সূত্রের খবর, মােবাইল ফোনে নতুন নতুন ইউটিউব ভিডিও দেখায় পটু হলেও পড়াশুনায় আগ্রহ কম ছিল। আর তাই নিয়েই বাড়িতে অশান্তি হয়। যার জেরে অভিমানে  ফুটফুটে কিশােরীর এমন মৃত্যু।  খবর জানাজানি হতে গােটা এলাকায় শােকের ছায়া নেমে আসে। মুষড়ে পড়েছেন দোলনের আত্মীয়রা। শােকস্তদ্ধ প্রতিবেশীরাও। পুলিশের অনুমান, স্কুলে এবং বাড়িতে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মানসিক চাপ এবং তার জেরে অবসাদে এই ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে ওই কিশােরী। তবুও ময়নাতদন্তের রিপোের্ট খতিয়ে তবে এ ব্যাপারে পূর্ণাঙ্গ ধারনা পাওয়া যাবে বলে পুলিশ জানিয়েছে। 
পুলিশ ইতিমধ্যেই প্রতিবেশী ও পরিবারের লােকজনদের সঙ্গে কথা বলে গােটা ঘটনার তথ্য সংগ্রহ শুরু করেছে। মনােবিদরা মনে করেন, কোনও বাড়িতে যদি পনেরো বছরের কিশােরী নিজেকে সকলের থেকে বিচ্ছিন্ন ভাবতে বাধ্য হয়, এর চেয়ে দুঃখের কিছু হতে পারে না। কারণ একজন কিশােরি যখন পরিবারের কাউকে নিজের দুঃখের কথা বলতে না পারে, তখনই তার মনে মৃত্যু চিন্তা আসে। আর তারই ফলশ্রুতি এ ধরনের ঘটনা। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে , সােমবার রাতেও দোলনের পরিবারের সদস্যরা তাকে বকাবকি করেছিল। পরদিন অর্থাৎ সােমবার রাতে তাদের ঘরের ভেতর থেকে দরজা ভেঙে দোলন দাসের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। তার ঘরেই সে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলছিল। দোলন বিনয় বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। আর কদিন বাদেই মাধ্যমিক পরীক্ষা, তার আগেই এমন একজন কিশােরীর এমন পরিণতি অনেকেই মেনে নিতে পারছেন না।

Loading...