বাড়ি কলকাতা এবার ডিজিটাল পঞ্জিকাতেও মিটবে বাঙালিয়ানা

এবার ডিজিটাল পঞ্জিকাতেও মিটবে বাঙালিয়ানা

172
0

কলকাতা, ১৩ এপ্রিল : ১৫ এপ্রিল থেকে লকডাউন শিথিল হবে না দীর্ঘায়িত হবে। এখনও পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরকারিভাবে তা জানাননি। এই দোলাচলের মধ্যেও পঞ্জিকা এবং বাংলা ক্যালেন্ডার প্রস্তুত। গুপ্ত প্রেসের দাবি, অন্য বছরে পয়লা বৈশাখে ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ পঞ্জিকা বিক্রি হয়। এবারে তার ব্যতিক্রম হবে ঠিকই, কিন্তু পরিস্থিতি ঠিক হলে আগের মতোই বিক্রি হবে, এবং সেই সময়ের জন্য তারা যথেষ্ট পরিমানে ক্যালেন্ডার এবং পঞ্জিকা প্রস্তুত করে রেখেছেন।
নববর্ষ এখনও পর্যন্ত কার্যত এবার ছাপানো পঞ্জিকা ও বাংলার ক্যালেন্ডার ছাড়াই কাটতে চলেছে। দেশ তথা রাজ্যজুড়ে করোনার জেরে লকডাউন চলার জন্য এবছর অন্তত পঞ্জিকা ছাড়াই কাটাতে হতে পারে। পঞ্জিকা ও বাংলা ক্যালেন্ডার ছাপা হয়ে গেলেও তা ক্রেতাদের কাছে পর্যন্ত পৌঁছানো গেল না। চলতি বছরে পয়লা বৈশাখ বাঙালিদের কাটতে চলেছে গৃহবন্দী অবস্থাতেই। এরকমভাবে নববর্ষ অতীতে কখনই পালন হয়নি। কিন্তু বাঙালিরা প্রধাণ দুটি জিনিস অর্থাৎ পঞ্জিকা এবং বাংলা মাসের ক্যালেন্ডার ছাড়া যে অসম্পূর্ণ থেকে যাবে। এদিকে শহরের প্রায় প্রত্যেকটি ছাপাখানাতেই ক্যালেন্ডার এবং পঞ্জিকা প্রস্তুত হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এই অবস্থায় তা ঘরে ঘরে পৌঁছানো সম্ভব নয়। তাই এবার গুপ্ত প্রেসের পক্ষ থেকে এক অভিনব উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। গুপ্ত প্রেসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এবার তাঁরা অনলাইনের মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে যাবেন। এর জন্য তাঁদের অফিসিয়াল নম্বরে যোগাযোগ করতে হবে। সেখানে গ্রাহকরা যদি ইমেল আইডি বা হোয়াটস অ্যাপ নম্বর পাঠায়। তাহলে সঙ্গে সঙ্গে তাঁদের কাছে পৌঁছে যাবে গুপ্ত প্রেসের পঞ্জিকা। কর্তৃপক্ষের আশা, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে চিরাচরিত রূপে পাঠকদের হাতে পৌঁছে যাবে পঞ্জিকা।

Loading...