বাড়ি কলকাতা রোজভ্যালি কাণ্ডে ডিসি বন্দর ওয়াকার রাজাকে সিবিআইয়ের জিজ্ঞাসাবাদ

রোজভ্যালি কাণ্ডে ডিসি বন্দর ওয়াকার রাজাকে সিবিআইয়ের জিজ্ঞাসাবাদ

45
0

কলকাতা, ৪ নভেম্বর : রোজভ্যালি কাণ্ডে ডিসি বন্দর ওয়াকার রাজাকে সোমবার জিজ্ঞাসাবাদ করল সিবিআই।  সিবিআই সূত্রে খবর, ২০১২ সালে কাস্টমস হাউসে বৈঠক হয় । সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সেবি ও আরওসি-র প্রতিনিধিরা । সিবিআইয়ের দাবি, সিআইডি-র পক্ষ থেকে ওই বৈঠকে উপস্থিত হন ওয়াকার রাজা ।  সেই সূত্রেই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হল আজ । গত ২৬ অক্টোবর সারদা ও রোজভ্যালি তদন্তে আইপিএস অফিসার দময়ন্তী সেনকে জেরা করতে চেয়ে ডিজিকে চিঠি দিয়েছিল সিবিআই । কেন্দ্রীয় তদন্ত এজেন্সির তরফে বর্তমান (ডিসি) বন্দর ওয়াকার রাজাকেও জেরা করতে চেয়ে চিঠি পাঠানো হয় নবান্নে ।কয়েকমাস আগেই রাজ্য পুলিশ থেকে ফের কলকাতা পুলিশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে দুঁদে পুলিশ আধিকারিক দময়ন্তী সেনকে। এখন তিনি কলকাতার অতিরিক্ত কমিশনার (৩) পদে রয়েছেন । জানা গেছে, ২০১০ সালে তৎকালীন অর্থমন্ত্রী অসীম দাশগুপ্ত রোজভ্যালির বেআইনি টাকা তোলা নিয়ে দময়ন্তী সেনকে চিঠি লিখেছিলেন। দময়ন্তী তখন ছিলেন কলকাতা পুলিশের অপরাধ দমন শাখার প্রধান । কিন্তু যেহেতু রোজভ্যালি সেবি নথিভুক্ত সংস্থা ছিল সেহেতু দময়ন্তী চিঠি লিখেছিলেন সেবিকে । সেবি রোজভ্যালির ব্যবসা বন্ধের বিজ্ঞপ্তি জারি করে এবং পরে গৌতম কুণ্ডু আদালতের দ্বারস্থ হয়ে সেই নির্দেশে স্থগিতাদেশ পেয়ে যান । সেই ব্যাপারে কথা বলার জন্যই দময়ন্তীকে জেরা করতে চাইছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা এজেন্সি।অন্যদিকে ওয়াকার রাজা  ২০১২ সালে ছিলেন সিআইডিতে । ওই সময়ে তিনমাস অন্তর কেন্দ্র ও রাজ্যের বিভিন্ন সংস্থা কাস্টমস হাউসে বৈঠকে বসত । উপস্থিত থাকতেন ২৮ থেকে ৩০টি সংস্থার আধিকারিকরা । সেবি, রেজিস্টার্স অব কোম্পানিজ, ইডি, কলকাতা পুলিশ, সিআইডির মতো সংস্থা থাকত ওই বৈঠকে । আলোচনা হত কর ফাঁকি, দুর্নীতি ইত্যাদি প্রভৃতি নিয়ে । জানা গেছে, ২০১২ সালের জুলাই মাসে প্রথম যখন ওই বৈঠকে রোজভ্যালির কেলেঙ্কারি সামনে আসে তখন নাকি খুব একটা গুরুত্ব দেওয়া হয়নি । ওই বৈঠকে ঠিক কী হয়েছিল তা এদিন জানতে চাওয়া হয় ওয়াকার রাজার কাছে । তিনি বলেন, ‘সিআইডির তরফেই আমাকে ওই বৈঠকে পাঠানো হতো । আমার যা মনে আছে আমি সিবিআইকে বলেছি ।‘

Loading...