বাড়ি কলকাতা মমতার তিন শীর্ষ-মন্ত্রীর পুজো সাড়া জাগাচ্ছে শহরে

মমতার তিন শীর্ষ-মন্ত্রীর পুজো সাড়া জাগাচ্ছে শহরে

71
0

কলকাতা, ৪ অক্টোবর :  ওঁদের তিন জনই মুখ্যমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ বৃত্তের। এ শহরের অতি বিখ্যাত তিনটি পুজোর রাশ ওঁদের দু’জনের হাতে। একজন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। অপর দু’জন রাজ্য মন্ত্রিসভার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দুই সদস্য পূর্তমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস এবং সুজিত বসু। 
পার্থবাবূ নাকতলা উদয়ন সঙ্ঘের পুজোয় যুক্ত।  তিনি সকালে নিজের বিধানসভা কেন্দ্র ঘুরে সন্ধ্যায় পুজো মণ্ডপে থাকেন। ২০০০ সাল থেকে তিনি এখানে যুক্ত। পার্থবাবুর বয়ানে, ছোটবেলা থেকে নাকতলা ডালগিস সর্বজনীন পুজোর সঙ্গে যুক্ত ছিলাম। কৃশাণু দে’র কল্যাণে উদয়ন সঙ্ঘে যুক্ত হই। আগে প্রাক্তন মন্ত্রী ক্ষিতি গোস্বামী চেয়ারম্যান ছিলেন, আমি ভাইস চেয়ারম্যান। এখন আমি চেয়ারম্যান। জনসংযোগের শ্রেষ্ঠ মাধ্যম হল পুজো। আমাদের পুজোর এবারের থিম হল ‘জন্ম’।

তাঁর সতীর্থ অরূপ বিশ্বাস কলকাতার অন্যতম সেরা পুজো সংগঠক হিসেবে পরিচিত। তিনি জানান, ভক্তিভরে বুদ্ধি করে পুজো করেন তিনি। তাঁর সুরুচি সঙ্ঘের এবারের থিম উৎসব। পুজোর ক’দিন তিনি সুরুচির পুজোমণ্ডপেই অস্থায়ী ক্যাম্প অফিসে থাকেন, বাড়িমুখো হন না। অরূপ বিশ্বাসই প্রথম কলকাতায় পুজোর হোর্ডিং লাগানোর সূচনা করেন। পুজোর বাজারে তিনি প্রথম এনেছেন হোর্ডিংয়ের মাধ্যমে প্রচার, খুঁটি পুজো, থিম সং, থিম সংয়ের ভিডিও, কলার টিউন। যা অনেকের কাছে অনুকরণযোগ্য। এবারের থিম ‘উৎসব’। শিল্পী ভবতোষ সুতার। আসলে প্রতিবছর নতুন ভাবনা পুজোর আঙ্গিককেই বদলে দিয়েছে। আর নতুন নতুন সৃষ্টির আনন্দে নিজেও পুজোর এই ক’দিন আনন্দে মেতে ওঠেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।একইরকম মাটি কামড়ে পুজো করেন দমকলমন্ত্রী সুজিত বসুও। তাঁর শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাবের পুজো উত্তরের অন্যতম আকর্ষণ। তিনিও প্রায় ২৪ ঘণ্টাই থাকেন পুজোমণ্ডপে। তাঁর ক্লাব শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাবের পুজো না দেখলে যেন দর্শকদের পুজো দেখা সম্পূর্ণ হয় না। গতবছর পদ্মাবতের মণ্ডপ বিপুল ভিড় টেনেছিল। তাঁর বাহুবলী মণ্ডপ দশর্ক টানায় ওয়ার্ল্ড গিনেস বুক অব রেকর্ডসে নাম তুলেছে। এবার ভারতীয় প্রাচীন সংস্কৃতি ও বর্তমান ঐতিহ্যের মেলবন্ধন ফুটে উঠেছে মণ্ডপে। গোটাটাই তাঁর নিজস্ব ভাবনা বলে জানিয়েছেন সুজিত বসু। তিনি বলেন, মন্দির ও মহলের সংমিশ্রণের ধারণা থেকে তা তৈরি হয়েছে। প্রতিমা হবে সাবেকি। মা কে পরানো হয়েছে সেনকো গোল্ড-র ১০ কোটি টাকার সোনা। চন্দননগরের বাবু পালের আলোয় ফুটে উঠবে চন্দ্র অভিযান সহ সাম্প্রতিক বিষয়। এবারই প্রথম থিম সং বাজবে শ্রীভূমি পুজো মণ্ডপে।

Loading...