বাড়ি রাজ্য বহুতল ভেঙে ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকে বহু

বহুতল ভেঙে ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকে বহু

23
0


মুম্বই, ১৬ অক্টোবর : ফের ধসে পড়ল একটি বহুতল। মঙ্গলবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের পালঘর জেলায়। এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুসারে বহুতলের নিচে চাপা পড়ে রয়েছে প্রায় ২০ থেকে ৩০ জন মানুষ। উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে। তবে এখনও কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। কিন্তু মৃত্যুর আশঙ্কা উড়িয়ে দিচ্ছে না পুলিশ ও দমকল।

ঘটনাটি ঘটেছে, পালঘরের পূর্ব বিরারের নিত্যানন্দ নগর এলাকায়। মঙ্গলবার রাতে একটি জোরাল শব্দ শুনে ঘুম ভাঙে বাড়ির বাসিন্দা ও পড়শিদের। বাইরে এসে তাঁরা দেখেন বহুতলের একটি অংশ হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়েছে। সঙ্গে সঙ্গে উদ্ধারকাজে হাত লাগান স্থানীয়রা। খবর দেওয়া হয় পুলিশ ও দমকলে। কিছুক্ষণের মধ্যে দমকলের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ২০ থেকে ৩০ জন ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়ে রয়েছেন। তার মধ্যে একটি বছর চারেকের মেয়েও রয়েছে বলে খবর। তাকে এখনও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। তৃতীয় তলায় আটকে পড়েছে সে। যদিও উদ্ধারকারীরা তাকে ধ্বংস্তূপের নিচ থেকে বের করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

আটকে পড়া মানুষজনকে উদ্ধারের জন্য ধ্বংসস্তূপ সরাতে শুরু করেছে দমকল ও পুলিশ। হাত লাগিয়েছেন স্থানীয়রাও। ইতিমধ্যে কয়েক জনকে উদ্ধারও করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, মঙ্গলবার রাতে চারতলা ওই বহুতলের চতুর্থ তলাটি ভেঙে পড়ে। ভেঙে পড়া বহুতলটি বেআইনিভাবে নির্মাণ করা হয়েছিল। তবে, কী কারণে তা ভেঙে পড়ল, তা এখনও স্পষ্ট নয়। ঘটনার কারণ অনুসন্ধান করতে ও পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ঘটনাস্থলে গিয়েছেন পুরসভার আধিকারিকরা।

উল্লেখ্য, গতমাসেই মুম্বইয়ে ভেঙে পড়েছিল বহুতল। তার আগের মাসেও মহারাষ্ট্রে বহুতল ভেঙে পড়ার ঘটনা ঘটে। দক্ষিণ মু্ম্বইয়ের ক্রফোর্ড মার্কেটে ফের ভেঙে পড়ে বহুতলের একাংশ। তবে ওই ঘটনায় দমকল বাহিনীর তৎপরতায় প্রাণহানি এড়ানো গিয়েছিল। ওই বহুতলটি আগে থেকেই বিপজ্জনক বলে চিহ্নিত হওয়ায় বাসিন্দাদের আগেই সরিয়ে ফেলা হয়েছিল নিরাপদ স্থানে। তাই সেদিনের ঘটনাতেও প্রাণহানি এড়ানো গিয়েছিল।

Loading...