বাড়ি কলকাতা পুনরায় হামলার মুখে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, বিজেপি-তৃণমূল ধস্তাধস্তিতে ধুন্ধুমার লেকটাউনে

পুনরায় হামলার মুখে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, বিজেপি-তৃণমূল ধস্তাধস্তিতে ধুন্ধুমার লেকটাউনে

62
0

  কলকাতা, ৩০ আগস্ট : ফের আক্রমণের মুখে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। শুক্রবার সকালে বাড়ি থেকে প্রাতঃভ্রমণ এবং ‘চায়ে পে চর্চা’-তে বার হয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ, সঙ্গে ছিলেন তাঁর সঙ্গী ও দেহরক্ষী। লেক টাউনে একদল ছেলে তাঁদের ওপর চড়াও হয়। বিজেপি-র তরফে দলীয় হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে অভিযোগ করা হয়েছে, আক্রমণকারীরা তৃণমূল কংগ্রেসের সমর্থক। স্থানীয় কাউন্সিলর প্রায় আড়াইশ ছেলে নিয়ে এসে তর্ক জুড়ে দেয়। দিলীপবাবুর রক্ষী ও সঙ্গীরা হস্তক্ষেপ করলে হামলাকারীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয়। দিলীপবাবু আহত না হলেও, তাঁর দুই সঙ্গী আহত হয়েছেন বলে দলের দাবি। কিছুক্ষণের মধ্যে হামলাকারীরা চলে যায়। তৃণমূলের তরফে অবশ্য অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। এরপর বিজেপি সমর্থকরা এলাকায় সমবেত হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। তাঁরা ‘ইনক্লাব জিন্দাবাদ’, ‘বিজেপি জিন্দাবাদ’ এবং ‘ভারতমাতা কী জয়‘ বলে ধ্বণি দিতে থাকেন। দলনেতার ওপর আক্রমণের নিন্দা করেন। এলাকায় বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। গ্রেফতারের খবর এখনও পাওয়া যায়নি। 
এর আগে পঞ্চায়েত ভোটের আগেও সাতসকালে নির্বাচনী প্রচারে বার হওয়ার মুখে দিলীপবাবুকে লক্ষ্য করে কে বা কারা পাথর ছুঁড়েছিল। সেটি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে তাঁর গাড়ির কাঁচে লাগে। কাঁচ ভেঙে যায়। দলীয় নেতৃত্বের কাছে খবর ছিল ফের দিলীপ ঘোষের ওপর আক্রমণ হতে পারে। সেই কারণে ক’দিন আগেই তাঁর বাড়ি বদল করা হয়। বিজেপি সূত্রের খবর, শুক্রবার সকালে লেকটাউনের দক্ষিণ দাঁড়ি রোড এলাকায় চায়ে পে চর্চা-র আয়োজন করা হয়েছিল। সেই উপলক্ষ্যে পতাকা লাগাতে গেলে বিজেপি কর্মীদের মারধর করা হয়। পরে দিলীপ ঘোষ এলে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পুলিশের সামনেই তৃণমূল-বিজেপি কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। দিলীপ ঘোষকে তাড়া করা হয় বলেও অভিযোগ। প্রসঙ্গত, এর আগে দার্জিলিংয়ে দিলীপবাবুকে প্রকাশ্যে একদল ছেলে আক্রমণের চেষ্টা করেছিল। দক্ষিণবঙ্গের এক জেলাতেও একবার সম্প্রতি তাঁর ওপর আক্রমণের চেষ্টা হয়েছে।

Loading...