বাড়ি রাজ্য মালদা পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠলো প্রতিবেশী এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে

পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠলো প্রতিবেশী এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে

97
0

মালদা,  ২৯ আগস্ট । ১০ টাকা দেওয়ার লোভ দেখিয়ে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠলো প্রতিবেশী এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে কালিয়াচক থানার জলুয়াবাধাল গ্রাম পঞ্চায়েতের দক্ষিণ কদমতলা গ্রামে। বুধবার এব্যাপারে প্রতিবেশী অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে কালিয়াচক থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেছেন নির্যাতিতা ওই নাবালিকা ছাত্রীর পরিবার। ওইদিন রাতে তদন্তে নেমে পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে। পাশাপাশি পুরো ঘটনাটি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে কালিয়াচক থানার পুলিশ। ওই নাবালিকাকে শাররীক পরীক্ষার জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল ভর্তির ব্যবস্থা করেছে তদন্তকারী পুলিশ অফিসারেরা।

পুলিশ সূত্রে জানাগেছে, ধৃত ব্যক্তির নাম ইমতাজ আলী(৫৬)। তার বাড়ি কদমতলা গ্রামে। এদিন ধৃতকে গ্রেফতারের পর আদালতের মাধ্যমে সাত দিনের পুলিশি হেফাজতে নেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছে।  ।

ওই নির্যাতিতা ছাত্রীর পরিবার পুলিশকে জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার সকাল ৮টা  নাগাদ বাড়ির সামনে খেলছিল ১২ বছরের ওই পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী। সে মোহদীপুর বালিকা বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীতে পাঠরত। সেইসময় ১০ টাকা দেওয়ার লোভ দেখিয়ে গ্রামেরই ইমতাজ আলী নামে এক ব্যক্তি নিজের বাড়িতে নিয়ে যায়।সেখানেই ওই নাবালিকা ছাত্রীকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত ব্যক্তি। এই ঘটনার বিষয়ে কাউকে জানালে প্রাণে মারার হুমকি দেয় অভিযুক্ত ইমতাজ আলী। কিন্তু মঙ্গলবার রাতে বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়ে।পরিবারের লোকেরা জিজ্ঞাসা করতেই ছাত্রী তার উপর নির্যাতনের সমস্ত ঘটনা জানায়।

এদিকে এই ঘটনা জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়ায় গ্রাম জুড়ে। বুধবার এনিয়ে ওই গ্রামে  সালিসি বসে। এরই মধ্যে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে অভিযুক্ত ইনতাজ আলী এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়। বুধবার রাতে থানায় অভিযোগ হতেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এই ঘটনায় অভিযুক্তের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছে নির্যাতিতার পরিবার।

কালিয়াচক থানার পুলিশ জানিয়েছে , পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ইনতাজ আলী নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।  পুরো বিষয়টি তদন্ত শুরু করা হয়েছে। 

Loading...