বাড়ি রাজ্য নববর্ষ এর প্রণাম জানিয়ে শেষ প্রচারে কর্মী সমর্থকরা।

নববর্ষ এর প্রণাম জানিয়ে শেষ প্রচারে কর্মী সমর্থকরা।

74
0

পিয়া গুপ্তা,

আজ পহেলা বৈশাখ বাংলা নববর্ষের প্রথম দিন। তাই এই দিনটি কে স্বাগত জানাতে এবং বছরের প্রথম দিন মায়ের আশির্বাদ নিতে  সকাল সকাল বয়রা কালীমন্দিরে পূজো দিতে হাজির হয়ে ছিলেন বহু মানুষ। বাংলা নববর্ষের প্রথম দিন তার পাশাপাশি আর হাতে গোনা মাত্র কয়েকটা দিন তাই  মায়ের  পূজো দিয়ে প্রচারে নামতে দেখা গেল এদিন বহু নেতা নেত্রী দের । এদিন মায়ের আশীর্বাদ নিয়ে ই কেউ দোকানে  গিয়ে হালখাতা সারলেন। কেউ বা বাড়িতে গিয়ে গৃহ কর্তীর হাতে ক্যালেন্ডার ধরালেন  আবার কেউবা  নববর্ষ এর প্রণাম জানিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময়ের মাধ্যমে মানুষের সাথে জনসংযোগ গড়ে তুললেন । কারন হাতে গোনা আর মাত্র কয়েকটা দিন তাই, বাংলা  নতুন বছরের প্রথম দিন  নানা জন, নানা ভাবে শুরু করলেন শুভেচ্ছা বিনিময়ের মাধ্যমে মানুষের সাথে জনসংযোগ । এদিন কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার পৌরপতি কার্তিক চন্দ্র পাল কে দেখা গেল সকাল সকাল মায়ের পূজো দিয়েই মানুষের সাথে নববর্ষের শুভেচ্ছা বিনিময়ের পাশাপাশি রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে তৃনমূল পার্থী কানাইলাল আগাওয়ালার হয় এ প্রচার করতে।কদিন বিভিন্ন ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে মানুষের দরবারে গিয়ে টানা প্রচার করার পর  আজ ও  তেমনি শুভ নববর্ষের দিনও  ভোলেননি বড়ো দের আশীর্বাদ নিতে। এদিন কার্তিক বাবু কে দেখা যায় কখনো  ব্যবসায়ীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করতে কখনো বা  পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ডে গিয়ে বড়দের প্রণাম নিয়ে মিষ্টি মুখ করাতে। নববর্ষের প্রথম দিন তাই প্রচার মিছিলের পরিবর্তে শুভেচ্ছা বার্তা বিনিময়ে র মাধ্যমেই  দলের পার্থী কানাই লাল আগরওয়ালা র হয়েই ভোট পার্থনা করছেন কার্তিক বাবু। এদিন কালিয়াগঞ্জ পৌরসভার পৌরপতি কার্তিক পাল  বলেন, ‘‘নতুন বাংলা বছরে সকলেই  উৎসবে মেতে থাকেন। সে কারণে সকাল সকাল মায়ের পূজো করে প্রচার না করে শুভেচ্ছা বিলি করছেন। বড়ো গুরুজন দের আশীর্বাদ নিয়েই তিনি তার নববর্ষের প্রথম দিন শুরু করবেন। কারন আশীর্বাদ ছাড়া কখনও কোনো শুভ কাজ সম্পূর্ণ হতে পারে না। তাই মানুষের প্রণাম নিয়েই তার দলের দলীয় পার্থী কানাই লাল আগরওয়ালা র সমর্থনে প্রচার সারলেন আজ তিনি।

Loading...