বাড়ি কলকাতা টেন্ডার গঠনে স্বচ্ছতা আনতে প্রতিটি বরোতে ই-সেল খুলছে কলকাতা পুরসভা

টেন্ডার গঠনে স্বচ্ছতা আনতে প্রতিটি বরোতে ই-সেল খুলছে কলকাতা পুরসভা

33
0

কলকাতা, ৩০ অক্টোবর : এবার থেকে কোন প্রকল্পের বাজেট ৫ লক্ষ টাকার বেশি হলেই ই-টেন্ডারের মাধ্যমে ঠিকাদার নির্বাচন বাধ্যতামূলক। সরকারি দফতর সহ স্বশাসিত সংস্থাগুলিকে এমন নির্দেশই দিয়েছে রাজ্য সরকারের অর্থ দফতর| সেই কারণেই শহরের প্রতিটি বরোতে ই-সেল গঠন করছে কলকাতা পুরসভা| শহরের বিভিন্ন ছোট প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত ঠিকাদাররা যাতে ই-টেন্ডারে অংশগ্রহণ করেন সেই সম্পর্কে সচেতন করতে ও অংশগ্রহণে সহযোগিতা করতে কলকাতা পুরসভা এই পদক্ষেপ নিয়েছে|

 এই প্রসঙ্গে মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেন, “রাজ্য সরকারের নির্দেশ মত আমি ইতিমধ্যেই প্রতিটি বরোতে ই-সেল গঠন করার জন্য নির্দেশ দিয়েছি। ই-সেল কম বাজেটের প্রকল্পের ঠিকাদারদের ই-টেন্ডারে অংশগ্রহন করার জন্য সচেতন ও সহযোগিতা করবে”। মেয়র আরও বলেন, “আমরা বেশকিছু দিন ধরে ই-টেন্ডারে ভালো পারফরমেন্সের জন্য ক্রাইসিলের বিচারে ‘এ প্লাস’ ক্যাটাগরিতে রয়েছি। ই-টেন্ডার পদ্ধতিই  বিভিন্ন প্রকল্পের দরপত্র আহ্বানের সবচেয়ে আধুনিক পদ্ধতি। সারা দেশে এই পদ্ধতিই অনুসরণ করা হচ্ছে|”

 পুরসভা সূত্রে খবর,  এখনও পর্যন্ত ই-টেন্ডারের মাধ্যমে ৪১১১ টি প্রকল্পের জন্য দরপত্র ডাকা হয়েছে। পুরকর্তাদের একাংশের মতে,  কলকাতা পুরসভা ই-টেন্ডার বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে অন্যান্য পুরসভা ও কর্পোরেশনের থেকে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে। ‘কম্পট্রোলার এন্ড অডিটার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া’(সিএজি) ই-টেন্ডারকে সঠিকভাবে বাস্তবায়নের জন্য কলকাতা পুরসভাকে ‘ট্রু এন্ড ফেয়ার’  লেখা শংসাপত্রও  দিয়েছে। পুরসভার এক কর্তা জানান, “ই-টেন্ডার প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা আছে। যদি প্রশাসন ভিতর থেকে কোনও ঠিকাদারকে টেন্ডার পাইয়ে দেওয়ার বিষয়ে কারচুপি না করে তবে এই  প্রক্রিয়া বিলম্ব হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই|”

এদিকে, রাজ্যের অনেক পুরসভা ই-টেন্ডারের ক্ষেত্রে গড়িমসি করছে বলে অভিযোগ আসায়  পুর ও নগর উন্নয়ন দফতর বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

Loading...