বাড়ি কলকাতা টাস্ক ফোর্সের অভিযান চলছে, কিন্তু স্বস্তিতে নেই ক্রেতারা

টাস্ক ফোর্সের অভিযান চলছে, কিন্তু স্বস্তিতে নেই ক্রেতারা

48
0

কলকাতা, ১৯ নভেম্বর : মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে মূল্যবৃদ্ধি-সংক্রান্ত টাস্ক ফোর্সের অভিযানের পরেও বহু বাজারে আনাজপাতির দাম কমছে না বলে অভিযোগ। সরকারের তরফে অবশ্য দাবি করা হয়েছে, দাম কিছুটা কমেছে। আরও কমবে। 

 দুদিন আগেই চন্দ্রমুখী আলুর দাম ছিল ২৫ টাকা কিলো। যাদবপুর-বিক্রমগড় অঞ্চলের বাসিন্দা অঙ্কুর ভট্টাচার্য এ কথা জানিয়ে বলেন, এখন এই দাম হয়েছে ২৪ টাকা। ছোট ফুলকপির দাম ক’দিনে ৪০ টাকা থেকে কমে হয়েছে ২০ টাকা। পেয়াজ ৮০ টাকা থেকে কমে কিলোপিছু হয়েছে ৭০ টাকা| যদিও হাওড়ার হাঁসখালির বাসিন্দা হিরক কর বলেন, ছোট কফির দাম আজও বাজারে ৩০ টাকা করে। 

গত শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নবান্ন-তে টাস্ক ফোর্সের সদস্যদের নিয়ে বৈঠকে বসেন| তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন আগামী ৭-৮ দিনের মধ্যে মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে আনার। পাশাপাশি অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারিও দিলেন। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি নিয়ে তিনি অসাধু ব্যবসায়ীদের দিকে আঙুল তুলেছেন। তিনি বলেছেন, “কিছু অসাধু ব্যবসায়ী বেশি দাম নিচ্ছে। আলু ফুলকপির দামও বেশি নিচ্ছে।” এছাড়াও পেঁয়াজ নিয়ে নাসিকের দিকে আঙুল তুলেছেন তিনি জানান, “পেঁয়াজ নিয়ে সমস্যা আছে। নাসিকের সাথে আমাদের চুক্তি হয়েছিল ২৫ টাকা কিলো দরে পেঁয়াজ দেবে। কিন্তু ওরা চুক্তি মানছে না।”

 টাস্ক ফোর্সের সদস্য তথা ফোরাম অফ ট্রেডার্স অর্গানাইজেশনের সাধারণ সম্পাদক রবীন্দ্রনাথ কোলে মঙ্গলবার ‘হিন্দুস্থান সমাচার-কে বলেন, আজ আমরা কোলে মার্কেট, কলেজ স্ট্রিট মার্কেটে ঘুরেছি। এটা ঠিকই কিছু সব্জির পাইকারি আর খুচরো দরের মধ্যে কোনও পার্থক্য নেই। যেমন গাজরের দুটি ক্ষেত্রেই দাম ১০০ টাকা কিলো। তবে গত বৃহস্পতিবার অভিযানের শুরুতে দেখেছিলাম বড় সব্জির প্রায় সব কটির দাম ছিল ৮০ টাকা করে। এগুলো কমে হয়েছে ৫০ টাকা করে। 

অভিযোগ আসছে মফস্বলের কিছু বাজার থেকে। রবীন্দ্রনাথবাবু এ কথা স্বীকার করে বলেন, আজ এ কারণে বারাকপুর কমিশনারেটের সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিশনারের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। আগামীকাল এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের পুলিশ রহড়া এবং বরাহনগরের বঙ্গলক্ষী মার্কেটে হানা দেবেন।

Loading...