বাড়ি রাজ্য উত্তর দিনাজপুর চিকিৎসার গাফিলতিতে প্রসূতীর মৃত্যুকে ঘিরে উত্তেজনা, ভাঙচুর বেসরকারি নার্সিংহোমে

চিকিৎসার গাফিলতিতে প্রসূতীর মৃত্যুকে ঘিরে উত্তেজনা, ভাঙচুর বেসরকারি নার্সিংহোমে

50
0


ইসলামপুর , ৩১ অক্টোবর ।চিকিৎসার গাফিলতিতে প্রসূতীর মৃত্যুকে ঘিরে উত্তেজনা, ভাঙচুর বেসরকারি নার্সিংহোমে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুরের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে। মৃত ওই প্রসূতির নাম সবুক্তা খাতুন( ২৩), বাড়ি ইসলামপুর থানার রামগঞ্জ-২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতর মানিকপুর এলাকায়। অভিযুক্ত চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ইসলামপুর থানায় অভিযোগ দায়ের মৃতার পরিবারের। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ইসলামপুর থানার পুলিশ।  
পরিবারসূত্রে জানা গিয়েছে, ইসলামপুর থানার রামগঞ্জ-২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের মানিকপুর এলাকার বাসিন্দা সবুক্তা খাতুন প্রসব যন্ত্রনা নিয়ে ইসলামপুরের একটি বেসরকারি নার্সিংহোম ভর্তি হয়েছিলেন। বুধবার সন্ধ্যায় সবুক্তা খাতুনের সিজারের পর একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি। অপারেশনের পর প্রসূতি মা ও নবজাতক সুস্থই ছিল বলে জানা গিয়েছে।  বৃহস্পতিবার সকালের সবুক্তা খাতুনের বাবা তার মেয়েকে দেখতেও আসেন। সেই সময়ও সবুক্তা খাতুন ভালো ছিল। এরপর সেখানে কর্তব্যরত এক নার্স সবুক্তা খাতুনের বাবাকে বলেন একটি ইঞ্জেকশন দিতে হবে। সবুক্তা খাতুনকে ইঞ্জেকশন দেওয়া পরেই সবুক্তা খাতুনের মৃত্যু হয় বলে অভিযোগ ওঠে।  পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ ভুল ইঞ্জেকশনের কারনে সবুক্তা খাতুনের মৃত্যু হয়েছে। এর কিছুক্ষন পর কর্তব্যরত চিকিৎসক নার্সিংহোমে আসলে সবুক্তার মৃত্যুর খবর শুনে পালিয়ে যান বলে অভিযোগ। সবুক্তার মৃত্যুর ঘটনা জানাজানি হতেই নার্সিংহোম এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। সবুক্তার পরিবারের সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে নার্সিংহোম ভাংচুর চালায় বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে ইসলামপুর থানার পুলিশ। নার্সিংহোমে পুলিশ পৌছালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। মৃতার পরিবারের  দাবি যতক্ষন না ওই কর্তব্যরত চিকিৎসক  নার্সিংহোমে না আসবেন ততক্ষন  সবুক্ত’ র মৃত্যুদেহ নার্সিংহোম থেকে বের করবেন না।  ওই চিকিৎসকের  বিরুদ্ধে সবুক্তার পরিবারের পক্ষ থেকে ইসলামপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Loading...