বাড়ি রাজ্য মালদা গৃহবধূকে বাড়িতে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা, বাধা দেওয়ায় কুপিয়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ...

গৃহবধূকে বাড়িতে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা, বাধা দেওয়ায় কুপিয়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠলো যুবকের বিরুদ্ধে

136
0

মালদা, ২৯ অক্টোবর ।  গাজোল থানার পান্ডুয়া এলাকায় গভীর রাতে গৃহবধূকে বাড়িতে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা, বাধা দেওয়ায় চাকু দিয়ে কুপিয়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠলো এক যুবকের বিরুদ্ধে। সোমবার গভীর রাতে এই  ঘটনার পর চাঞ্চল্য দেখা যায় এলাকায় . গভীর রাতে ওই গৃহবধূর আর্তচিৎকারে বাড়ির লোকেদের ঘুম ভেঙে যায়। সেই সময় পরিস্থিতি বেগতিক দেখে পালিয়ে যায় হামলাকারী যুবক। রাতেই রক্তাক্ত ওই গৃহবধূকে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করান পরিবারের লোকেরা।

এদিকে এই ঘটনায় টোটন বসাক নামে  এক হামলাকারীর বিরুদ্ধে গাজোল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন আক্রান্ত ওই মহিলার বাবা নিখিল বালা।  ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত পলাতক। হামলাকারীর খোঁজ চালাচ্ছে সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ। 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে,  আক্রান্ত গৃহবধূ’র নাম লিলিমা বালা (২৫)। তার বাবার বাড়ি গাজোলের পান্ডুয়া এলাকায়। সাত বছর আগে ওই মহিলার বিয়ে হয়েছিল মালদা শহরের সুকান্তপল্লী এলাকায়। কিন্তু বিয়ের বছর কয়েক পর ওই মহিলার স্বামী দুর্ঘটনায় মারা যান। এরপর পান্ডুয়ায় বাবার বাড়িতেই এক নাবালক সন্তানকে নিয়ে থাকতেন ওই মহিলা। এরইমধ্যে মালদা শহরের তেলিপুকুর এলাকার বাসিন্দা টোটন বসাকের সঙ্গে পরিচয় হয় ওই মহিলার। আর তারপর থেকেই প্রতিনিয়ত ওই মহিলাকে অভিযুক্ত যুবক নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতো, কুপ্রস্তাব দিচ্ছিল বলে অভিযোগ। 

পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার রাতে বাড়ির লোকেদের অলক্ষ্যে শোবার ঘরে ঢুকে পড়ে অভিযুক্ত যুবক টোটন বসাক। ওই মহিলাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে বাধা দেয়াতেই তাকে একাধিক জায়গায় চাকু দিয়ে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা করা হয়।

আক্রান্তের বাবা নিখিল বালা পুলিশকে অভিযোগে জানিয়েছেন, ঘটনার সময় আমরা পাশের ঘরে নাতিকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলাম। মেয়ে পাশের ঘরে ঘুমাচ্ছিল। সিড়ি ঘরের দরজা ভেঙে ওই যুবক বাড়িতে ঢুকে মেয়ের ওপর হামলা চালিয়েছে। পুরো ঘটনার ব্যাপারে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছি।

মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডেপুটি সুপার ডাঃ জ্যোতিষ চন্দ্র দাস জানিয়েছেন, ওই রোগীর বামদিকের কোমর এবং তলপেটের তিন জায়গায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। তিনটি জায়গায় অস্ত্রোপচার করা হয়েছে । আপাতত ওই রোগীর অবস্থা স্থিতিশীল।

গাজোল থানার পুলিশ জানিয়েছে,  অভিযুক্ত যুবক ঘটনার পর থেকেই গা-ঢাকা দিয়েছে।  তার খোঁজ চালানো হচ্ছে।

Loading...