বাড়ি রাজ্য অনেক নদীব্রিজ ও কালভার্টের অবস্থা খারাপ বলে বিধানসভায় স্বীকার করলেন মন্ত্রী

অনেক নদীব্রিজ ও কালভার্টের অবস্থা খারাপ বলে বিধানসভায় স্বীকার করলেন মন্ত্রী

71
0

কলকাতা, ২৭ আগস্ট : রাজ্যের প্রচুর নদীব্রিজ ও কালভার্টের অবস্থা খারাপ বলে বিধানসভায় স্বীকার করে নিলেন সেচ ও জলপথ দফতরের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। এই সঙ্গে অধিবেশনে তিনি দাবি করেন, রাজ্য পর্যায়ক্রমে জীর্ণ সেতু সংস্কার ও নতুন করে তৈরি করার চেষ্টা করছে। 

জেলায় এবং গ্রামাঞ্চলে মাঝেমধ্যেই সেতু ভাঙার ঘটনা ঘটে। অনেক সময় সে সব খবর প্রকাশ্যে আসে না। এদিন প্রশ্নোত্তরপর্বে সিপিএমের সমর হাজরার প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী জানান, রাজ্যে গুরুত্বপূর্ণ নদীব্রিজ ও কালভার্টের সংখ্যা ৪৫৭৯। এর মধ্যে বড় নদী ২১টি। এ ছাড়া ৮৯৮টি কাঠের সেতু আছে। অন্তত ৫০/৬০টি বেশ পুরনো ও জীর্ণ। ১২০৩টির সংস্কার দরকার। ধাপে ধাপে তা করা হচ্ছে। আগামী তিন বছরে ৩৭৩টি পরিবর্ত সেতু তৈরি হবে। 
বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান অধিবেশনে বলেন, আমি একটি স্কুলের পড়ুয়াদের দেখলাম বিপজ্জনকভাবে নয়নজলির ওপর সাঁকো পার হচ্ছে। ওই স্কুল-কর্তৃপক্ষ জানালেন, প্রশাসনের কাছে অনেক দরবার করেও লাভ হয়নি। আমি বিধায়ক তহবিলের অর্থে একটি সেতু তৈরির প্রস্তাব দিই। কিন্তু সরকারের বিভিন্ন দফতর পরস্পরের ওপর দায় চাপিয়ে দায়িত্ব এড়ানোর চেষ্টা করেছে। এই সমস্যার সমাধানের জন্য সরকার একটি নির্দিষ্ট কমিটি করে দিক। 
জবাবে মন্ত্রী বলেন, যে সেতুগুলোর দৈর্ঘ্য ১২  কিলোমিটারের বেশি, সেগুলো দেখভালের দায়িত্ব পূর্ত দফতরের। ছোটগুলোর দায়িত্ব সেচ ও জলসম্পদ দফতরের। এগুলোর অবস্থা খতিয়ে দেখতে আমাদের নজরদারি টিম আছে। তারা প্রয়োজনে যা ব্যবস্থা নেওয়ার নিচ্ছে। এই সঙ্গে বিরোধী দলনেতাকে বলেন, “আপনার বিধায়ক তহবিলে অর্থ বরাদ্দের দরকার নেই। আমার দফতরই ওখানে সেতু তৈরি করে দেবে।”

Loading...